প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] জলঢাকায় মামুনুল হক গং কে অবাঞ্ছিত ঘোষণা

আব্দুল্লাহ মামুন:[২] স্বাধীনতাবিরোধী উগ্র সা¤প্রদায়িক ও ধর্ম ব্যবসায়ী কর্তৃক কুষ্টিয়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদে নীলফামারীর জলঢাকায় গতকাল (৮ ডিসেম্বর ২০২০) বিকেলে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ ফাউন্ডেশন।

[২] মঙ্গলবার বিকেলে ফাউন্ডেশনের ডালিয়া রোড কার্যালয় হতে সহস্রাধিক মানুষের বিক্ষোভ মিছিলটি বের হয়ে পৌর শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে স্থানীয় জিরো পয়েন্ট মোড়ের প্রতিবাদ সমাবেশে মিলিত হয়।

[৩] সমাবেশে প্রধান অতিথি যুদ্ধাপরাধ ট্রাইবুনালের সাবেক প্রসিকিউটর এবং ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ তার বক্তব্যে বলেন, বঙ্গবন্ধুর প্রশ্নে কোন আপোষ হবে না। বঙ্গবন্ধু মানেই বাংলাদেশ। বঙ্গবন্ধু মানেই আমাদের লাল সবুজের পতাকা। বঙ্গবন্ধু মানেই বিশ্বের বুকে বাংলাদেশের গর্বিত মানচিত্র। যারাই বঙ্গবন্ধুকে অবমাননা করবে আমরা বঙ্গবন্ধু সৈনিকরা তাদের প্রতিরোধ করব। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নিয়ে যে ষড়যন্ত্র চলছে, তা প্রতিহত করতে একাত্তরের কান্ডারী বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর সৈনিকরা প্রস্তত আছে এবং থাকবে। প্রয়োজনে হলে আরেকটি মুক্তিযুদ্ধ করব।

[৪] এই সময় জলঢাকার মেয়ে ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ মামুনুল হক গংদের জলঢাকাতে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করেন। তিনি বলেন, আমরা ইসলামের বিরূদ্ধে নই; আমরা আলেম সমাজের বিরুদ্ধে নই। আমরা ধর্ম ব্যাবসায়ীদের ষড়যন্ত্র জলঢাকার মাটিতে সফল হতে দেব না।

[৫] ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ ফাউন্ডেশনের প্রধান সমন্বয়ক এনামুল হকের সভাপতিত্বে এসময় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, সনাতন সম্প্রীতি সংঘের সভাপতি রঞ্জিত কুমার রায়, সাধারণ সম্পাদক অনিল চন্দ্র রায়, সাংগঠনিক সম্পাদক রতন কুমার রায়, চেতনায় মুক্তিযুদ্ধ সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম ও সাধারণ সম্পাদক রেজওয়ান প্রামাণিক প্রমুখ। ঘটনার সাথে জড়িত ও উস্কানিদাতাদের গ্রেপ্তার করে দ্রুত বিচারের দাবী জানান সকলে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত