প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ফেসবুকে ইহুদি বিদ্বেষী পোস্ট, দল থেকে বাঙালি কাউন্সিলর বরখাস্ত

ডেস্ক রিপোর্ট : ফেসবুকে ইহুদি বিদ্বেষী পোস্ট দেয়ার কারণে লেবার পার্টি থেকে বরখাস্ত হয়েছেন টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের মাইল অ্যান্ড ওয়ার্ডের বাঙালি কাউন্সিলর পুরু মিয়া। তার বিরুদ্ধে এন্টি সেমিটিজমের অভিযোগে তদন্ত শুরু করেছে লেবার পার্টি।

তদন্ত চলাকালে তিনি প্রশাসনিকভাবে পার্টি থেকে বরখাস্ত থাকবেন বলে পার্টির একটি সূত্র নিশ্চিত করেছে।

২০১৪ সালে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে দেয়া পোস্টের জন্যে ক্ষমাও চেয়েছেন কাউন্সিলর পুরু মিয়া। এক বিবৃতিতে তিনি বলেছেন, লেবারপার্টিতে যোগ দেয়ার আগে পুস্তক বাণিজ্যের সঙ্গে জড়িত ছিলেন তিনি। পাঠ্যপুস্তক কেনা-বেচার সময় একজন ইসরায়েলি ইতিহাসবিদের একটি লেখার সঙ্গে দ্বিমত পোষণ করতে গিয়ে ফেসবুকে তিনি ওই পোস্ট লিখেছিলেন।

পোস্টের কিছু অংশের কারণে তিনি এখন লজ্জিত বলে জানিয়েছেন কাউন্সিলর পুরু মিয়া। ফেসবুকের দীর্ঘ পোস্টের এক জায়গায় ‘ইহুদি জাতির কোনো বাস্তব ভিত্তি নেই’ বলে মন্তব্য করেন পুরু মিয়া। যদিও পোস্টটি ফেসবুক থেকে মুছে ফেলেছেন তিনি।

উল্লেখ্য, কাউন্সিলর পুরু মিয়া লেবার পার্টি সমর্থক সংগঠন মোমেন্টামের কেন্দ্রীয় কোষাধ্যক্ষ ছিলেন। ২০১৭ সালের সাধারণ নির্বাচনের সময় লেবার সমর্থক সংগঠন মোমেন্টামের গ্রুপের কোষাধ্যক্ষ থেকে তিনি একটি রাজনৈতিক দলের নির্বাচনী ক্যাম্পেইনারেরও দায়িত্ব পালন করেন।

২০১৯ সালে ইংল্যান্ডের ইলেক্ট্ররাল কমিশন জানিয়েছে, নির্বাচনের সময় প্রায় ১৫ হাজার পাউন্ডের বেশি অঘোষিত দান গ্রহণ করেছে মোমেন্টাম। কিন্তু ইলেক্টরাল কমিশনে কোষাধ্যক্ষ হিসেবে ওই দানের অর্থের যথাযথ নথিপত্র বা প্রমাণ দেখাতে ব্যর্থ হন তিনি।

টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের বাসিন্দাদের মাঝে পুরুমিয়াকে নিয়ে রয়েছে নানান সমালোচনাও। তার ওয়ার্ডের ব্রিটিশ বাংলাদেশিদের অনেকেই তাকে উগ্রপন্থি হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন।

ব্রিটেনের বহুজাতিক সমাজে উগ্রবাদের কোনো স্থান নেই। এছাড়া দলীয় হুইপের সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করে কাউন্সিলের পার্কিং সিস্টেম পরিবর্তনের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে ক্যাম্পেইনও করেছেন তিনি।

অন্য একটি সূত্র নিশ্চিত করেছে তার এমন মন্তব্যের কারণে তার কাউন্সিলারশিপও চলে যেতে পারে। টাওয়ারহ্যামলেটস কাউন্সিলও তার ব্যাপারে তদন্ত শুরু করেছে।
সূত্র- ঢাকাটাইমস

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত