প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ফুটবল ঈশ্বরকে বোকা জুনিয়র্সের শ্রদ্ধা, গ্যালারিতে বসে অঝোরে কাঁদলেন কন্যা

স্পোর্টস ডেস্ক : [২] যে ক্লাবে দুই দফায় ক্যারিয়ারের বর্ণিল সময় কাটিয়েছেন ম্যারাডোনা, সেই আর্জেন্টাইন ক্লাব বোকা জুনিয়র্স মাঠে নেমেছিল রোববার। কিংবদন্তি ডিয়েগো ম্যারাডোনার মৃত্যুর পর এই প্রথম মাঠে নামে দলটি। নিজেদের ক্লাব কিংবদন্তির বিদায়ে বোকা জুনিয়র্স বলতে গেলে পুরো ম্যাচ জুড়েই শ্রদ্ধা জানিয়েছে। মাঠে উপস্থিত ম্যারাডোনা কন্যা ডালমা ম্যারাডোনা যা দেখে অঝোরে কেঁদেছেন।

[৩] ম্যারাডোনা গত সপ্তাহে হার্ট অ্যাটাকে মারা যান। আর্জেন্টিনাবাসী যে উপলক্ষ্যে তিন দিনের রাষ্ট্রীয় শোক পালন করে। গত দুই-তিন দিন বিশ্বের নানা প্রান্তে হওয়া ফুটবল ম্যাচে ফুটবলাররা শ্রদ্ধা জানিয়েছেন বিশ্বকাপজয়ীকে।

[৪] রোববার আর্জেন্টিনার ঘরোয়া কাপ টুর্নামেন্ট কোপা দে লা লিগা প্রফেসিওনালে মাঠে নামে বোকা জুনিয়র্স ও নিওয়েলস ওল্ড বয়েজ। দুটিই ম্যারাডোনার সাবেক ক্লাব। এর মধ্যে টুর্নামেন্টটারও নামকরণ করা হয়েছে ম্যারাডোনার নামে।
বোকার লা বোমবোনেরা স্টেডিয়ামে হয়েছে ম্যাচটি। যেখানে ম্যারাডোনার জন্য আলাদা বক্স রয়েছে। ম্যারডোনার মেয়ে এদিন সেই বক্সে বসেই বাবার সাবেক দুই ক্লাবের খেলা দেখেছেন।

[৫] দুই দলের খেলোয়াড়রাই এদিন জার্সির পেছনে ম্যারাডোনা লিখে মাঠে নামে। ম্যাচের ১২ মিনিটে বোকার কলম্বিয়ান স্ট্রাইকার এডউইন কারডোনা গোল করেন। ফ্রি কিক থেকে গোলটি করার পর কারডোনা চলে যান ম্যারাডোনা বক্সের সামনে। ম্যারাডোনার একটি জার্সি বিছিয়ে দেন। এরপর কারডোনা ও বোকার অন্য খেলোয়াড়রা ম্যারাডোনা বক্সের দিকে তাকিয়ে হাততালি দিতে থাকেন। এ সময় কান্না ধরে রাখতে পারেননি ডালমা।

[৬] কারডোনা ২০ মিনিটে আরো একটি গোল করেন। ম্যাচটা ২-০ গোলে জেতে বোকা জুনিয়র্স। ম্যাচ শেষে আবারো সেই বক্সের সামনে গিয়ে হাততালিতে জয়টা ম্যারাডোনাকে উৎসর্গ করেন খেলোয়াড়েরা। ডালমা এসময় খেলোয়াড়দের উদ্দেশে বললেন, ‘গ্রাসিয়াস’। বাংলায় যার অর্থ ‘ধন্যবাদ’। কিক অফের আগেও দুই দলের খেলোয়াড়রা শ্রদ্ধা জানায় ম্যারাডোনাকে। ম্যারাডোনা বোকায় প্রথম খেলেন ১৯৮১-৮২ মৌসুমে। এসময় ৪০ ম্যাচে করেন ২৮ গোল। পরে ক্যারিয়ারের শেষ পর্যায়ে ১৯৯৫-১৯৯৮ পর্যন্ত খেলেছেন। – গোল ডটকম/ দেশরূপান্ত

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত