প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] আমৃত্যু উল্লেখ না থাকলে যাবজ্জীবন মানে ৩০ বছর

নূর মোহাম্মদ : [২] মঙ্গলবার প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন সাত বিচারপতির আপিল বেঞ্চ এ রায় ঘোষণা করেন। সাভারের এক হত্যা মামলায় ‘যাবজ্জীবন কারাদণ্ড মানে আমৃত্যু কারাবাস’ বলে আপিল বিভাগের রায়টির পুনর্বিবেচনা চেয়ে আবেদন করলে আজকে এ সিদ্ধান্ত দেওয়া হয়।

[৪] আইনজীবীরা জানান, প্রাথমিকভাবে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড- মানে হচ্ছে স্বাভাবিক মৃত্যু না হওয়া পর্যন্ত। তবে দণ্ড- বিধির ৫৫ ও ৫৭ ধারা এবং ফৌজদারী কার্যবিধির ৩৫-এ এর সঙ্গে মিলিয়ে পড়লে যাবজ্জীবন মানে হচ্ছে ৩০ বছর। আদালত যদি স্বাভাবিক মৃত্যু না হওয়া পর্যন্ত কারাদণ্ড- দেয় অথবা আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল আইনে দণ্ডি ব্যক্তির ক্ষেত্রে ফৌজদারী কার্যবিধির ৩৫-এ প্রযোজ্য হবে না।

[৫] অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন বলেন, সুপ্রিম কোর্ট তাদের সংক্ষিপ্ত আদেশে বলেছেন (সংখ্যাগরিষ্ঠ মতের ভিত্তিতে), যাবজ্জীবন বলতে ‘প্রাইমা ফেসি’ বোঝা যাচ্ছে যে সারাজীবনই হবে। তবে বিভিন্ন আইন, ধারা উপধারা বিশ্লেষণ করে আদালত বলছেন যে, যাবজ্জীবন মানে ৩০ বছর। কিন্তু যদি কোনো আদালত, ট্রাইব্যুনাল এবং আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল কোনো মামলায় কারো যদি আমৃত্যু কারাদণ্ড দেন, সে ক্ষেত্রে আমৃত্যু হবে।

[৬] খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, আইনের বিধান অনুযায়ী একজন যাবজ্জীবন আসামির সাজা ৩০ বছর ভোগ করতে হবে। সে ক্ষেত্রে আইনের অন্যান্য রেয়াত যেগুলো আছে, ৩৫এসহ অন্যান্য রেয়াত পাবে। যদি না আদালত বিশেষভাবে আদেশ দেন তাকে আমৃত্যু জেলখানায় থাকতে হবে।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত