প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] বিএসএমএমইউ’র চার চিকিৎসককে খুঁজছে পুলিশ

ইসমাঈল ইমু : [২] বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে অস্ত্রোপচারের সময় দুটি কিডনি কেটে ফেলায় রওশন আরা নামে এক রোগীর মৃত্যুর ঘটনায় মামলা দায়ের হয়েছে। মামলায় ইউরোলজি বিভাগের অধ্যাপক মো. হাবিবুর রহমান দুলাল, সহযোগী অধ্যাপক মো. ফারুক হোসেন, মো. মোস্তফা কামাল ও আল মামুনকে আসামি করা হয়েছে।

[৩] শনিবার শাহবাগ থানার ওসি মামুন অর রশিদ বলেন, ভুক্তভোগী রোগী ছেলে চলচ্চিত্র পরিচালক মো. রফিক সিকদার বাদী হয়ে শুক্রবার মামলাটি দায়ের করেন। মামলা নম্বর ৪৩। পুলিশ তাদের গ্রেপ্তারে অভিযান শুরু করেছে।

[৪] এজাহারে উল্লেখ করা হয়, ২০১৮ সালের ২৭ জুন দুপুর আনুমানিক সাড়ে ১২টার দিকে রওশন আরা বাম কিডনিতে ব্যথা অনুভব করলে প্রথমে তাকে মিরপুরের বি আইএইচএস হাসপাতালে ডা. মো. ইউসুফ আলীর অধীনে ভর্তি করা হয়। পরদিন জানা যায়, তার বাম কিডনি আক্রান্ত হয়েছে।

[৫] গত ৫ সেপ্টেম্বর আক্রান্ত বাম কিডনি অপসারণের জন্য তিন ঘণ্টা অস্ত্রোপচার করেন ওই চার চিকিসক। রাতে রওশন আরার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে চিকিৎসকরা নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) নেওয়ার পরামর্শ দেন।

[৭] ভোরে রওশন আরাকে মগবাজারে ইনসাফ বারাকাহ কিডনি অ্যান্ড জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরদিন ইনসাফ বারাকাহ হাসপাতালের চিকিৎসক ফখরুল ইসলাম বলেন, রওশন আরার একটি কিডনিও নেই।

[৮] ১ অক্টোবর হাবিবুর রহমান দুলাল চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতিতে রফিক সিকদারের সঙ্গে চুক্তি করেন। সেখানে তিনি ভালো কিডনি অপসারণের দায় স্বীকার করেন। প্রতিশ্রুতি দেন নতুন কিডনি প্রতিস্থাপন করে দেবেন এবং যাবতীয় খরচ বহন করবেন। রফিক সিকদারের খালা জায়েদা বেগন কিডনি দিতে রাজি হলেও তিনি আর কোনো উদ্যোগ নেননি। ৩১ অক্টোবর রাত পৌনে ১০টার দিকে রওশন আরা মারা যান। পরদিন রফিক সিকদার শাহবাগ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছিলেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত