প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] হোসেনপুরে সরিষার ফুল বিক্রি করে লাভবান কৃষকরা

আশরাফ আহমেদ: [২] কিশোরগঞ্জের হোসেনপুরে চলতি রবি মওসুমে ব্রহ্মপুত্রের বিস্তীর্ণ চরাঞ্চলের বেশিরভাগ জমিতে সরিষার ব্যাপক আবাদ করা হয়েছে। ফলনও হয়েছে বাম্পার। বিস্তীর্ণ চরাঞ্চলে শুধুই হলুদের সমারোহ। দূর থেকে দেখে মনে হবে সর্বত্রই যেন হলুদ গালিচা বিছানো। এ দিকে সরিষা ফুলের কদর বেশি থাকায় ওই ফুল বিক্রি করে বাড়তি উপার্জন করে লাভবান হয়েছেন অনেক কৃষক।

[৩] স্থানীয় কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, চলতি মওসুমে উপজেলার ছয়টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভায় ১ হাজার ১২৫ হেক্টর জমিতে সরিষা আবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ থাকলেও আবাদ হয়েছে অনেক বেশি। সরিষা ফুল বিক্রি করে অনেকেই লাভবান হওয়ায় কৃষকেরা অন্যান্য ফসলের পাশাপাশি সরিষা আবাদে ঝুঁকে পড়েছেন। কেননা সরিষার ফুল দিয়ে গৃহিণীরা মজাদার পিঠা ও বড়া তৈরি করে মেহমানদারিতে বৈচিত্র এনে থাকেন বিধায় গ্রাম-গঞ্জের সর্বত্রই সরিষা ফুলের কদর ব্যাপক হারে বাড়ছে।

[৪] বুধবার (২৫ নভেম্বর) সরেজমিনে তথ্য সংগ্রহ কালে উপজেলার জিনারী ইউনিয়নের চরকাটিহারী গ্রামের জলিল মিয়া ও সাইফুল ইসলাম, সাহেবের চর গ্রামের ফরিদ উদ্দিন, আলামিনসহ অনেকেই জানান, এবছর তারা শুধু সরিষার ফুল বিক্রি করে প্রত্যেকেই অর্ধ-লক্ষাধিক টাকা আয় করেছেন। তারা আরো জানান, সরিষা চাষে অন্যান্য ফসলের তুলনায় খরচ কম কিন্তু লাভের পরিমাণ বেশি।

[৫] তাই এবার অন্যান্য ফসলের পাশাপাশি সরিষার আবাদ করে শুধু সরিষার ফুল বিক্রি করে অনেক রেশি লাভবান হয়েছেন। এ সময় উপজেলার চর জামাইল গ্রামের কৃষক সাইফুল, নবী হোসেন ও নুরুল হকসহ অনেকে জানান, তারা এ বছর ২ বিঘা জমিতে সরিষা আবাদ করে প্রায় ১০ হাজার টাকার খরচ করে সরিষার ফুল বিক্রি করে ৪৫ হাজার টাকার বেশি।

[৬] এ ব্যাপারে উপজেলার কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ মোঃ ইমরুল কায়েস জানান, এ বছর অনুকূল আবহাওয়া ও কৃষি বিভাগের মাঠকর্মীদের যথাযথ তদারকি ও পরামর্শের কারণে কৃষকেরা কম খরচে সরিষা আবাদ করে বাম্পার ফলনসহ সরিষার ফুল বিক্রি করে মোটা অংকের আর্থিক লাভবান হচ্ছেন। তাছাড়া পরিপক্ক সরিষা উৎপাদন করে আরো বেশি লাভবান হবেন কৃষকরা বলেও মন্তব্য করেন তিনি। সম্পাদনা: সাদেক আলী

 

সর্বাধিক পঠিত