প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] দিবালোকের মতো স্পষ্ট, বিএনপি বাসে আগুন দিয়ে নোংরা খেলায় মেতেছে: তথ্যমন্ত্রী

সমীরণ রায়: [২] আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আরও বলেন, বাস পুড়িয়ে আবার বিএনপির নেতারা অবলীলায় মিথ্যা বলছে। তারা যদি আগুন নিয়ে খেলে। নিজেরাই সেই আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে যাবে। রাজনীতিতে অস্তিত্বের জানান দিতে বাস পোড়াতে হবে কেন? বিএনপি রাজপথে দাঁড়ালে হাঁটু কাপে। রাজনীতি যদি করতে হয়, হাঁটু কাঁপুনি ছাড়া দাঁড়ান। না হয় রাজনীতি থেকে বিদায় নেন।

[৩] তিনি বলেন, মিথ্যা বলার জন্য যদি কোনো পুরস্কার থাকতো, তাহলে নিঃসন্দেহে প্রথম পুরস্কার পেতেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল আলমগীর। বিএনপি নেতারা দলছুট। তাদের দলের অনেক বড় বড় নেতা মওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানীর অনুসারী ছিলেন। কিন্তু তারা ক্ষমতার উচ্ছিষ্ট গ্রহণের জন্য সামরিক শাসক জিয়াউর রহমানের সঙ্গে হাত মেলান। পরবর্তীতে তাদের দলের নেত্রী খালেদা জিয়ার সঙ্গে হাত মেলান। দলছুট নেতারা কখনো দেশকে কিছু দিতে পারে না। দলছুট রাজনীতিবিদরা দেশের মানুষকে কিছু দিতে পারে না। তারা শুধু নিজেদের আখের গোছাতে জানে।

[৪] ড. হাছান মাহমুদ বলেন, পাকিস্তান সৃষ্টির পর এদেশে জমিদার শ্রেণির হাতে রাজনীতি বন্দি ছিল। কিন্তু মওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানী রাজনীতি সাধারণ মানুষের কাতারে নিয়ে আসেন। অসাম্প্রদায়িক চেতনায় বিশ্বাসী তিনি আওয়ামী মুসলিম লীগ থেকে মুসলিম শব্দটি বাদ দেন। ইতিহাসে ভাসানীর নাম স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে। তিনি ক্ষমতার জন্য কোনোদিন রাজনীতি করেননি। তাহলে তিনি পাকিস্তানের মন্ত্রী হতে পারতেন। বিএনপি নেতাদের মওলানা ভাসানীর আদর্শ ধারণ করে রাজনীতি করতে আহ্বান জানান তিনি।

[৬] মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাবে মওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানীর ৪৪তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (ন্যাপ) আয়োজিত এক আলোচনা সভায় অনলাইনে তিনি এসব কথা বলেন।

 

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত