প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচন : ট্রাম্পকে নিয়ে চীনের ব্যাঙ্গ-বিদ্রুপ

ডেস্ক রিপোর্ট : যুক্তরাষ্ট্রে ভোটের ফল এখনও অমীমাংসিত। কে জিতবেন তা এখনই বলা অসম্ভব। এ অবস্থায় রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প জয় দাবি করছেন, ‍আবার ভোটে কারচুপির অভিযোগও করছেন- যা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে হাসি-ঠাট্টায় মেতেছে চীনারা।

চীনের টুইটার-ধাঁচে প্লাটফর্ম উইবোতে একজন লেখেন, ‘‘তিনি (ট্রাম্প) জেতেন বা হারেন, তার চূড়ান্ত লক্ষ্য আমেরিকার গণতন্ত্রিক চেহারা ধ্বংস করে ফেলা।”

অন্য আরেকজন লিখেছেন, ‘‘ট্রাম্পকে আবার নির্বাচিত হতে দিন, যাতে তিনি আমেরিকাকে টেনে আরও নিচে নামাতে পারেন।”

কূটনৈতিক নানা বিষয়ে চিরবৈরী দুই দেশ যুক্তরাষ্ট্র ও চীন। ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের ক্ষমতায় আসার পর সে বৈরিতা আরও বেড়েছে। সঙ্গে যোগ হয়েছে দুই দেশের বাণিজ্য লড়াই।

দুই দেশ একে অপরের পণ্যের উপর লাখ লাখ ডলারের শুল্ক আরোপ করেছে। চীনের উপর নতুন করে নানা নিষেধাজ্ঞাও আরোপ করেছেন ট্রাম্প।

তাই ট্রাম্প পুনঃনির্বাচিত হয়ে আরও চার বছরের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের ক্ষমতায় আসছেন কিনা তা জানতে এবারের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন ঘিরে চীন সরকার ও দেশটির নাগরিকদের আগ্রহের কমতি নেই।

যুক্তরাষ্ট্রে এবছর নির্বাচনী প্রচারের শুরু থেকেই চীনা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নির্বাচন ঘিরে আলোচনা চলছে।

চীনের রাষ্ট্রীয় সংবাদ মাধ্যমে নিয়মিত যুক্তরাষ্ট্রকে নিয়ে নানা নেতিবাচক খবর প্রচার করা হচ্ছে। ভোটের দিন নির্বাচন ঘিরে সহিংসতা হতে পারে আশঙ্কায় যুক্তরাষ্ট্রে অনেক দোকানের কাঁচের দরজা ও জানালা কার্ডবোর্ড দিয়ে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার ভোটের আগে চীনের গণমাধ্যমে এ বিষয়টি বেশ ফলাও করে প্রচার করা হয়।

এক টুইটে চীনের ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টি ঘনিষ্ঠ ‘গ্লোবাল টাইমস’ এর সম্পাদক হু জিজিন বলেন, ‘‘সাধারণত দরিদ্র দেশে নির্বাচন ঘিরে বিশৃঙ্খলা দেখা দেয় এবং এ ধরনের জটিলতার তৈরি হয়। কিন্তু এখন মনে হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের জনগণও এ ধরনের জটিলতা নিয়ে উদ্বিগ্ন। যুক্তরাষ্ট্রের আভিজাত্যের পতন হচ্ছে।”

ভোটের আগে বেশিরভাগ জনমত জরিপে ডেমোক্র্যাটিক প্রার্থী জো বাইডেনের বড় বিজয়ের আভাস দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু বাস্তবে তার দেখা পাওয়া যাচ্ছে না। বরং ট্রাম্প শুরু থেকেই বাইডেনের ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলছেন। এমনকি বাইডেনকে হারিয়ে তার পুনঃনির্বাচিত হওয়ার জোর সম্ভাবনা আছে। এ নিয়েও টুইটারে বিদ্রুপ করেছেন জিজিন।

এছাড়া, বিশেষ করে চীনের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনী ম্যাপের একটি ‘মিম’ ভাইরাল হয়েছে।

ভাইরাল হওয়া সেই ম্যাপে দেখানো হয়েছে ট্রাম্প ২৭০টি ইলেকটোলার ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। নির্বাচনী ম্যাপে লাল রঙ দিয়ে ট্রাম্পের বিজয় দেখানো হয়েছে। ম্যাপে লাল রঙ মিলে যে আকার নিয়েছে তা দেখতে অনেকটা চীনের মানচিত্রের মত।

অনেকেই ওই ম্যাপ শেয়ার করে বলছেন, ট্রাম্প জেতার অর্থ যুক্তরাষ্ট্রে বিশৃঙ্খলা বাড়বে, আর তাতে লাভবান হবে চীন।

তবে যত কথাই বলা হোক, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন ঘিরে আনুষ্ঠানিকভাবে চীন বারবার নিজেদের নিরপেক্ষ অবস্থানই দাবি করেছে।

বুধবার চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়, ‘‘প্রেসিডেন্ট নির্বাচন যুক্তরাষ্ট্রের অভ্যন্তরীন বিষয়। সেটি ঘিরে চীনের কোনও অবস্থান নেই।”
সূত্র- বিডিনিউজ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত