প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] কাশ্মিরে কুলগামে ৩ বিজেপি কর্মীকে গুলি করে হত্যা

ইমরুল শাহেদ : [২] বৃহস্পতিবার গভীর রাতে এই ঘটনাটি ঘটেছে। রয়টার্স জানিয়েছে, এর কয়েকদিন আগে অন্যান্য রাজ্যের লোকেরা কাশ্মীরে জমি কিনতে পারবেন বলে মোদি সরকার অনুমোদন দিয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, ওয়াই কে পোরা অঞ্চল দিয়ে গাড়ি নিয়ে যাওয়ার সময় ওই তিন বিজেপি কর্মী হামলার শিকার হন। রয়টার্স, টাইমস অব ইন্ডিয়া, এনডিটিভি, আউটলুক ইন্ডিয়া

[৩] টাইমস অব ইন্ডিয়া ও এনডিটিভি’র খবরে বলা হয়েছে, দক্ষিণ কাশ্মিরের কুলগাম এলাকায় বৃহস্পতিবার রাতে এ ঘটনা ঘটলেও এখন পর্যন্ত কোনো সংগঠন এই হামলার দায় স্বীকার করেনি।

[৪] খবরে বলা হয়েছে, গুলিবিদ্ধ হওয়ার পর গুরুতর আহত অবস্থায় বিজেপি’র ওই তিন কর্মীকে উদ্ধার করে কাজিগান্ড ইমার্জেন্সি হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে নেওয়ার পর চিকিৎসকরা তাদের মৃত ঘোষণা করেন। হাসপাতালের মেডিকেল সুপার ডা. আসিমা নাজির বলেন, হাসপাতালে পৌঁছানোর আগেই তাদের মৃত্যু হয়েছিল।

[৫] কাশ্মির রেঞ্জের আইজিপি বিজয় কুমার বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে জানান, নিহত তিন জনের মধ্যে ভিদা হোসেন ইয়াটু ছিলেন কুলগাম বিজেপি’র যুব সংগঠনের অফিস সহকারী। বাকি দু’জন উমর রশিদ বেগ ও উমর রমজান হাজাম। তারা দু’জনেই পার্টির সদস্য।

[৬] এ হামলার ঘটনায় এক টুইটে শোক জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তিনি লিখেছেন, ‘আমি এ হামলার তীব্র নিন্দা জানাই। জম্মু-কাশ্মিরে এই তিন যুব নেতা দারুণ কাজ করছিলেন। তাদের শোকস্তব্ধ পরিবারের প্রতি আমার সমবেদনা। নিহতদের আত্মার শান্তি কামনা করি।’

[৭] নরেন্দ্র মোদি ছাড়াও বন্দুকধারীদের গুলিতে তিন বিজেপি কর্মীর মৃত্যুর ঘটনায় শোক জানিয়েছেন কাশ্মিরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি ও ওমর আবদুল্লাহ।

[৮] জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করে রাজনীতিবিদদের আটক করার পর থেকেই রাজ্যটির তরুণরা মোদি সরকারের বিরুদ্ধে ক্ষোভে পুষছেন।

[৯] মোদি সরকার বলছে, তারা গোটা দেশের সঙ্গে রাজ্যটির অখণ্ডতা সংহত করার জন্য চেষ্টা করে যাচ্ছেন। অন্যান্য রাজ্যের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে আইনও তৈরি করার উদ্যোগ নিয়েছেন। পক্ষান্তরে এই সময়টাতে বিজেপির ওপর হামলা বেড়ে গেছে। কাশ্মীরে এ পর্যন্ত বিজেপির নয় সদস্য নিহত হয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত