প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] সংগীতশিল্পী ফেরদৌস ওয়াহিদের দুই ভাতিজিকে বাবার বাড়িতে প্রবেশের ব্যবস্থা করতে হাইকোর্টের নির্দেশ

নূর মোহাম্মদ : [২] সোমবার সন্ধ্যায় বিচারপতি মো.নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি আহমেদ সোহেলের বেঞ্চ এ নির্দেশ দেন। সম্প্রতি গণমাধ্যমে প্রকাশিত এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন আমলে নিয়ে এ আদেশ দেওয়া হয়।

[৩] পুলিশ পাহারায় অনতিবিলম্বে তাদের দুই বোনকে গুলশান ২ নম্বরে ৯৫ নম্বর রোডের ৪ নম্বর বাড়িতে প্রবেশের ব্যবস্থা করতে পুলিশকে নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে ওই বাড়ির সামনে আগামী ১ নভেম্বর পর্যন্ত পর্যাপ্ত পুলিশ মোতেয়েন করে তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে বলা হয়েছে। এছাড়া ১ নভেম্বর সকাল সাড়ে ১০ টায় গুলশান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে দুই বোন ও অনুজ কাপুরসহ আদালতে উপস্থিত থাকতে বলেছেন হাইকোর্ট।

[৪] বিমানবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত ক্যাপ্টেন (মৃত) মোস্তফা জগলুল ওয়াহিদের মেয়ে মুশফিকা মোস্তফা ও মোবাশশারা মোস্তফা। অভিযোগ উঠেছে জগলুল ওয়াহিদের দ্বিতীয় স্ত্রী দাবি করা অনুজ কাপুর দুই বোনকে বাড়িতে প্রবেশ করতে দিচ্ছে না।

[৫] গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়, জগলুল ওয়াহিদ ২০০৫ সালে চাকরি থেকে অবসরে যান। ওই বছরই স্ত্রীর সঙ্গে তার বিচ্ছেদ হয়। পরে তার স্ত্রী গুলশানেই অন্য এক বাসায় ওঠেন। মুশফিকা ঢাকায় তার মায়ের সঙ্গে থাকেন। আর মোবাশশারা স্বামীর সঙ্গে ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রে। গত ১০ অক্টোবর বাবার মৃত্যুর পর দাফন শেষে দুই বোন গুলশানের ওই বাসায় ঢুকতে গিয়ে বাধা পান বলে তাদের অভিযোগ।

[৬] মুশফিকা মোস্তফা বলেন, ছয়-সাত বছর আগে ভারতীয় নাগরিক অনজু কাপুর তাদের বাবার সেবিকা হিসেবে বাসায় ওঠেন। ওই নারী এখন নিজেকে তাদের সৎমা দাবি করছেন। তারা দুই বোন চেয়েছিলেন, বাবার লাশ বনানী কবরস্থানে দাফন করতে। কিন্তু তাদের ছোট চাচা কণ্ঠশিল্পী ফেরদৌস ওয়াহিদ ও ফুফু আশরাফুন সিদ্দিকী বাধা দেন। এরপর মিরপুর বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে লাশ দাফন করা হয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত