প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কামরুল হাসান মামুন: সকল ধর্মের মানুষ তাদের নিজ নিজ ধর্ম পালন করতে পারলে শান্তির সুবাতাস বইবে

কামরুল হাসান মামুন: উত্তরার ৩ নং সেক্টরে শারদীয় দুর্গা পূজা আয়োজনের জন্য প্রস্তুতি চলছে জেনে, এলাকার ধর্মপ্রাণ মুসলমান তথা তৌহিদী জনতার হৃদয়ে নাকি রক্তক্ষরণ হচ্ছে। ওই এলাকার মুসলমানদের ঈমান আকিদা সংস্কৃতি ও সভ্যতা ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষা ও ধর্মীয় সম্প্রীতি বজায় রাখতে শারদীয় দুর্গা পূজা পালন করতে নাকি দেওয়া হবে না। পালন করতে গেলে নাকি এলাকার তৌহিদী জনতা কঠিন প্রতিরোধ গড়তে বাধ্য হবে। এই তৌহিদী মানুষগুলোই যখন ভারতে গরু জবাই ও গরুর মাংস খাওয়া নিষিদ্ধ করে তখন প্রতিবাদ করে। এই তৌহিদী মানুষগুলোই যখন ভারতে কিছু হিন্দু মৌলবাদী দ্বারা নিগৃহীত হয়, তখন প্রতিবাদ করে ফাটাইয়া ফালায়। এখন যদি ভারত, ইউরোপ আমেরিকার সংখ্যাগরিষ্ঠ ধর্মের মানুষরা বলে তাদের দেশে মসজিদ থাকতে দিবে না, আজানের মাধ্যমে শব্দ দূষণ হতে দেবে না কেমন হবে?

বাংলাদেশে একসময় যখন ২৫-৩০ শতাংশ হিন্দু ছিলো, তখন তো কোনো অসুবিধা হয়নি। এখন এদর সংখ্যা কমে ৮-৯ শতাংশ হওয়াতে দুর্বল হওয়ায় এবং পূজা মন্ডপ সংখ্যা কম হওয়া সত্ত্বেও তৌহিদী জনতার সমস্যা। পৃথিবীর অনেক দেশে মুসলমানরা সংখ্যালঘু। আমরা এখানে যা করি ওইসব দেশে যদি সংখ্যাগরিষ্ঠরা আমাদের উপর সেইরকম আচরণ করে আপনাদের ভালো লাগবে? দুর্বলের উপর সবলের এই আচরণ ও চিন্তাভাবনা অসভ্যতার লক্ষণ। একটু বিচার বিবেচনা করে কথা এবং কাজ করলে ভালো হয় না? পৃথিবীতে সকল ধর্মের মানুষরা তাদের নিজ নিজ ধর্ম পালন করতে পারলে শান্তির সুবাতাস বইবে নইলে এনট্রপি বেড়ে দেশে দেশে সংঘাত বাড়বে। এইটুকু বুঝতে কি বড় শিক্ষিত হওয়ার দরকার আছে? ফেসবুক থেকে

 

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত