প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] নির্বাচনের দুই সপ্তাহ আগে ট্রাম্পের প্রচারণা তহবিল কমে ৬৩ মিলিয়ন, বাইডেনের ১৭৭ মিলিয়ন

রাশিদুল ইসলাম : [২] সেপ্টেম্বরের শেষে ট্রাম্পের রিইলেকশন ক্যাম্পেন কমিটির তহবিলে ছিল ৬৩.১ মিলিয়ন ডলার। যদিও কয়েকটি টেলিভিশন বিতর্ক অনুষ্ঠান বাতিল করা হয় ট্রাম্পের পক্ষ থেকে তারপরও ওই তহবিলে ডলারের পরিমান বাড়েনি। মার্কিন প্রেসিডেন্টের প্রতিদ্বন্দ্বি জো বাইডেনের ছেলে জোসেফ আর বাইডেন জুনিয়র জানান তাদের হাতে নগদ রয়েছে ১৭৭.৩ মিলিয়ন ডলার। নিউইয়র্ক টাইমস

[৩] গত বছরের শুরুতে রিপাবলিকান ন্যাশনাল কমিটি দেড় বিলিয়ন ডলারের তহবিল গড়ে তোলে। কিন্তু জরুরিভাবে প্রয়োজন মেটানো ছাড়াও টেলিভিশন বিজ্ঞাপন খরচের পর ট্রাম্পের রিইলেকশন কমিটি বলছে এখন সামান্যই হাতে আছে। অক্টোবরের শুরুতেও ট্রাম্পের এ নির্বাচনী তহবিলে ২৫১.৪ মিলিয়ন ডলার ছিল। তার প্রতিদ্বন্দ্বী ডেমোক্রেটিক ন্যাশনাল কমিটির তহবিলে ওই সময় ছিল ৪৩২ মিলিয়ন ডলার।

[৪] তহবিল সংকটে ট্রাম্পকে গুরুত্বপূর্ণ রাজ্যগুলোতে প্রচারণার সময় ছেঁটে ফেলতে হচ্ছে।

[৫] বসন্তের শুরুতেও ট্রাম্পের নির্বাচনী তহবিলে ১৯০ মিলিয়ন ডলার ছিল। কিন্তু অক্টোবরের শুরুতে বাইডেন ট্রাম্পের চেয়ে তার তহবিল ৩ গুণ বৃদ্ধি করেন।

[৬] ট্রাম্পের নির্বাচনী মুখপাত্র সামান্থা জেগার বলেন প্রয়োজনীয় নির্বাচনী ব্যয় মেটানোর মত আমাদের টাকা আছে। ২০১৬ সালে হিলারি ক্লিনটন যখন নির্বাচনী ব্যয়ে আমাদের ছাড়িয়ে গিয়েছিলেন তখনো আমাদের হাতে অত টাকা ছিল না।

[৭] পেনসিলভানিয়ায় গত বৃহস্পতিবার রাতে ট্রাম্প তার নির্বাচনী তহবিলের এ অবস্থা যুক্তি দিয়ে খণ্ডন করে বলেন আমি ইচ্ছা করলে সবচেয়ে বেশি অর্থ তুলতে পারতাম। কিন্তু আমি কারো কাছে ঋণী হতে চাইনি।

[৮] তবে ট্রাম্পের নির্বাচনী ব্যয় কমে যাওয়ার বিষয়টি নিয়ে ডেমোক্রেট শিবিরকে খুশি বলে মনে করছেন নির্বাচনী পর্যবেক্ষকরা।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত