প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

হাফিজুর রহমান রিক: পোড়া কপাল ঢাকা ৫ আসনের, নিয়ন্ত্রণ মিথ্যুকদের হাতেই!

হাফিজুর রহমান রিক: ঢাকা ৫ উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ভোট দিতে গেলে সাংবাদিকদের ভোট দেওয়ার ছবি তুলতে কেন্দ্রে ঢুকতে দেয়নি। কেন্দ্র থেকে বের হয়ে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, তিনি ভোট দিয়েছেন। পরে বিএনপি প্রার্থীর অভিযোগে জানা যায় যে, আওয়ামী লীগের প্রার্থী অত্র এলাকার ভোটার নন। নির্বাচন কর্মকর্তাও একথা স্বীকার করেন। সুতরাং তিনি ভোট না দিয়ে মিথ্যা কথা বলেছেন।

থ্রিল আরও বাকি ভাইলোক, বিএনপি প্রার্থী সালাউদ্দিনকে আমি খুব ভালো করেই চিনি। স্কুলে পড়ার সময় সালাউদ্দিনকে আমি পাবলিকের হাতে মাইর খাইতে দেখছি। বিএনপির আমলে তখন তিনি এমপি ছিলো (তখন ঢাকা-৪ ও ঢাকা-৫ একই আসন ছিলো, পরে বিভক্ত করা হয়)। শনিরআখড়া-দনিয়া এলাকায় বিদ্যুৎ পানির সংকট দেখা দেয়। সাধারণ মানুষ আন্দোলনে নামে। ঢাকা-চিটাগাং মহাসড়ক অবরোধ করে দেয়। সালাউদ্দিন জনতাকে আশ^াস দিতে আসে। ক্ষিপ্ত জনতা দেয় বেদম মাইর। রক্তাক্ত সালাউদ্দিন দৌড়ে পালিয়েছিলেন সেদিন।
ঘটনা হচ্ছে সালাউদ্দিন নিজেও এই এলাকার ভোটার নন। তার আসন ঢাকা-৪ থেকে তিনি গত নির্বাচনে অংশ নিয়ে বিপুল ভোটে হেরেছিলেন। এবার বেহায়ার মতো ঢাকা-৫ এর নির্বাচনে উড়ে এসে জুড়ে বসার মতো অংশ নিয়েছেন এবং তিনি বিপুল ভোটে পরাজিত হয়ে জামানত হারিয়েছেন। নির্বাচন কর্মকর্তা স্বীকার করেছেন, বিএনপির সালাউদ্দিনও এই এলাকার ভোটার নন। অথচ তিনিও ভোট দিতে গিয়েছিলেন কেন্দ্রে। মিথ্যা স্ট্যান্টবাজি আরকি। যদিও সংসদ নির্বাচন করতে অত্র এলাকার ভোটার হওয়া বাধ্যতামূলক নয়। কিন্তু পোড়া কপাল আমার ঢাকা-৫ আসনের, মিথ্যুকদের হাতেই তার নিয়ন্ত্রণ। ফেসবুক থেকে

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত