প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] থাইল্যান্ডে জরুরি অবস্থা জারি, বিক্ষোভ

লিহান লিমা: [২] বুধবার ব্যাংককের রাস্তায় প্রকাশ্যে থাই রাজতন্ত্রের বিরুদ্ধে স্পর্শকাতর স্লোগান দেয় হাজারো বিক্ষোভকারী। থাই রাজা মহা ভাজিরালংকন এই সপ্তাহে জার্মানি থেকে ফিরে স্ত্রী সুদিথাকে নিয়ে এই সময় শহর পরিদর্শনে বেরিয়েছিলেন। বিক্ষোভকারীরা রাজকীয় গাড়িবহর যাওয়ার সময় রাজতন্ত্র বিরোধী চিহ্ন প্রদর্শন করে ও স্লোগান দেয়। বিবিসি/দ্য গার্র্ডিয়ান

[৩]শতশত দাঙ্গা প্রতিরোধী পুলিশ রাজপথে নেমে বিক্ষোভকারীদের রাস্তা থেকে সরাতে চেষ্টা করে। বিক্ষোভকারীরা প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনের সামনে অবস্থান নিতে চাইলে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। সেপ্টেম্বর থেকে চলমান এই বিক্ষোভে আন্দোলনকারীরা রাজপরিবারের সংস্কার, সাবেক সেনাপ্রধান ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী প্রায়ুথ চান ও-চার পদত্যাগ এবং নতুন সংবিধানের দাবী জানিয়ে আসছেন। বিক্ষোভে মূল ভূমিকা পালন করছেন থাই শিক্ষার্থী ও তরুণরা।

[৪]এই সপ্তাহে বিক্ষোভ তুমুল আকার ধারণ করায় থাই সরকার জরুরি অবস্থা জারি করে যে কোনো ধরণের জনসমাগম নিষিদ্ধ করেছে। টেলিভিশন ভাষণে পুলিশ জানায়, শান্তি ও শৃঙ্খলা বজায় রাখতে জরুরী ভিত্তিতে পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। বিক্ষোভকারীরা বেআইনী ভাবে জনসমাগম করেছে এবং দাঙ্গা ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করছে।

[৫]বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, বৃহস্পতিবার পুলিশ বিক্ষোভের নেতৃত্ব দেয়া তিনজনকে আটক করেছে। এদের মধ্যে রয়েছেন মানবাধিকার বিষয়ক আইনজীবী আনোন নাম্পা, ‘পেঙ্গুইন’ নামে পরিচিত শিক্ষার্থী অধিকারকর্মী পারিথ চাইওয়ারাক ও পানুসূয়া সিথিজিরাওয়াতানাকুল।

[৬]গত আগস্টে আনোন সর্বপ্রথম রাজতন্ত্রের সমালোচনার করার ট্যাবু ভেঙ্গে এর সংস্কারের প্রকাশ্য দাবী জানান। পানুসায়া গত মাসে রাজকীয় সংস্কারের জন ১০টি ধারা বাস্তবায়নের দাবী জানান। থাইল্যান্ডে রাজতন্ত্রের সমালোচনার বিষয়টি অনেক স্পর্শকাতর। এই অপরাধে ১৫ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ডের বিধান রয়েছে।

[৭]থাইল্যান্ডের ইতিহাসে রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতার অনেক ঘটনা রয়েছ্ েকিন্তু ফেব্রুয়ারিতে আদালত গণতন্ত্রপন্থী বিরোধী দল ‘ফিউচার ফরোয়ার্ড পার্টি’কে নিষিদ্ধ করলে আন্দোলন জোরদার হতে থাকে। এই দলটি দেশটির তরুণ ও প্রথম ভোটারদের কাছে জনপ্রিয়তা পেয়েছে। ২০১৯ সালের নির্বাচনে দলটি পার্লামেন্টে তৃতীয় বৃহত্তম আসন লাভ করে ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত