প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শুভ কামাল: আকবরকে ধরে শাস্তি দিতেই হবে

শুভ কামাল: বাংলাদেশের পুলিশ বাহিনীর সদস্যদের একটা ধন্যবাদ দিই। আকবর ভূঁইয়া যে নিরপরাধ রায়হানকে পিটিয়ে মেরে ফেলেছে, তার পক্ষে কোনো পুলিশ সদস্যকে সাফাই গাইতে দেখিনি। পুলিশ বাহিনী এই ঘাতককে বাঁচানোর কোনো চেষ্টা করেনি, সিসি ক্যামেরার ফুটেজ গোপন করেনি, তাকে বরখাস্ত করেছে সেজন্য। আকবর বুঝতে পেরেছেন, আও-ভাও ভালো না, তাই পালিয়ে গেছেন। আমি মনেকরি, এমনই হওয়া উচিত প্রতিটি পেশার এবং প্রতিটি বাহিনীর সদস্যদের ক্ষেত্রে। যা খারাপ সেটাকে খারাপ বলতে হবে।

একদিকে অপরাধীকে বাঁচানোর চেষ্টা করে, অপরদিকে সবাই খারাপ না বলাটা হাস্যকর হয়ে যায়। একটা বক্সের দুইটা আলু পঁচা হলে সেই দুইটা আলুকে তুলে বাইরে ফেলে দিতে হবে। আমরা ইতোপূর্বে দেখেছি এমন ঘটনায় পঁচা আলু বাইরে না ফেলে, উল্টা নিজের বাহিনীর লোকেরা পঁচা আলুর গুনাগুন বর্ণনা করতে ব্যস্ত হয়ে যেতেন। এই ঘটনাটা উদাহরণ হয়ে থাকুক। সবাই জেনে রাখুক কেউই লাইসেন্সড টু কিল না। নিরাপরাধ মানুষকে মেরে ফেললে তার কনসিকোয়েন্স ফেস করতে হয়। ধারাবাহিকভাবে এমন কয়েকটা ঘটনার বিচার হলেই বাকি সবাই লাইনে এসে পড়বে। ও হ্যাঁ, আকবরকে ধরে শাস্তি দিতেই হবে। ফেসবুক থেকে

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত