প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] শীতের আগে ভারতে ঢুকতে ওঁৎ পেতে আছে ৩’শ পাকিস্তানি জঙ্গি, সতর্ক করলেন ভারতীয় সেনা কমান্ডার

রাশিদুল ইসলাম : [২] ভারতে গত বছর প্রায় ১৩০ জঙ্গি পাকিস্তান সীমান্ত পেরিয়ে উপত্যকায় ঢুকে পড়েছিল। এ বছর সেই সংখ্যা ৩০ জনের কাছাকাছি। ৭০ শতাংশেরও বেশি জঙ্গি অনুপ্রবেশ রুখে দিয়েছে ভারতীয় সেনারা, জানালেন মেজর জেনারেল অমরদীপ। তিনি বলেন, সংঘর্ষবিরতি চুক্তি ভেঙে রোজ সীমান্তে গোলা-গুলি চালালেও পাক মদতপুষ্ট জঙ্গিদের অনুপ্রবেশের চেষ্টা বারে বারেই বানচাল করে দিয়েছে ভারতীয় বাহিনী।

[৩] তার আশঙ্কা শীতের আগে নিয়ন্ত্রণরেখা পেরিয়ে উপত্যকায় ঢুকে পড়ার বড়সড় চেষ্টা চালাতে পারে জঙ্গিরা। কম করেও ২৫০ থেকে ৩০০ জঙ্গি সীমান্তের কাছে ওঁৎ পেতে আছে। বলেন ভারতীয় সেনাবাহিনীর বজ্র ডিভিশনের এই জেনারেল অফিসার কম্যান্ডিং (জিওসি) অমরদীপ সিং আউজলা।

[৪] ভারতীয় সেনার ১৫ নম্বর কোরের জিওসি লেফটেন্যান্ট জেনারেল বিএস রাজু বলেছেন, জঙ্গিদের সীমান্ত পার হওয়ার সুযোগ করে দিতে প্রায় প্রতিদিনই নিয়ন্ত্রণরেখায় গোলাগুলি চালিয়ে যাচ্ছে পাক সেনারা। ড্রোনে চাপিয়ে অস্ত্রশস্ত্র উপত্যকায় চালান করার চেষ্টাও চলছে।

[৫] ভারতীয় সেনা সূত্রের দাবি, কুলগাম, কুপওয়ারায় নতুন করে নাশকতা তৈরির চেষ্টা চালাচ্ছে জঙ্গিরা। রাজৌরি-পুঞ্চ এবং কুপওয়ার-কেরান সেক্টরে দিয়ে জম্মু-কাশ্মীরে জঙ্গি ঢোকানোর ছক কষছে লস্কর এবং জইশের প্রধানরা। রয়েছে পাকিস্তানের গুপ্তচর সংস্থা আইএসআইয়ের হাত রয়েছে। চীনের সঙ্গেও গোপন আঁতাত রয়েছে আইএসআইয়ের। কাশ্মীরে অশান্তি জিইয়ে রাখার জন্য জঙ্গি সংগঠন আল বদরের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মি।

[৬] রাজু বলেছেন, পাকিস্তানকে সংঘর্ষবিরতি বন্ধ করার জন্য বহুবার সতর্ক করা হয়েছে। কিন্তু তারা শুধরাবে না কখনও। জানুয়ারি থেকে অগস্টের মধ্যে অন্তত ২৪২ বার গোলাগুলি চলেছে নিয়ন্ত্রণরেখায়। পয়লা জানুয়ারি থেকে ৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত মোট ৩ হাজার ১৮৬ বার সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘন করা হয়েছে সীমান্তে। সীমান্ত উত্তেজনায় নিহত হয়েছে আটজন ভারতীয় জওয়ান। পাক গোলায় নিয়ন্ত্রণরেখার কাছে বহু বাড়িঘর ভেঙে গুঁড়িয়ে গেছে। ক্ষতি হয়েছে বহু মানুষের। সাধারণ গ্রামবাসীদের উপর হামলা চালিয়ে নিয়ন্ত্রণরেখায় অশান্তি জিইয়ে রাখতে চাইছে পাকিস্তান।

সর্বাধিক পঠিত