প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহু এবং আবুধাবির যুবরাজ মোহাম্মদ বিন জায়েদ বৈঠকে বসবেন

রাশিদুল ইসলাম : [২] দুজনের ফোন আলাপে বৈঠকের বিষয়বস্তু ঠিক হয়েছে। ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক আরো গভীর করার উপায় নিয়ে যুবরাজ জায়েদ আল-নাহিয়ান আলোচনায় বসবেন নেতানিয়াহুর সঙ্গে। তার আগে আমিরাত অভিযোগ করেছে কাতারে তুরস্কের সেনা থাকায় ওই অঞ্চলে অস্থিতিশীল পরিস্থিতির তৈরি হচ্ছে। এর কিছুদিন আগে তুরস্কের একটি দ্বীপ ফেরত চায় আমিরাত। ইসরায়েলের সঙ্গে যৌথ সামরিক ঘাঁটি তৈরি করতে দুই দেশের প্রতিনিধিদল শলাপরামর্শ করেছে।

[৩] গত ১৫ সেপ্টেম্বর সংযুক্ত আরব আমিরাতের সাথে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার ব্যাপারে তেল আবিব যে চুক্তি সই করেছে সোমবার ইসরাইলের মন্ত্রিসভা তা অনুমোদন দিয়েছে। এরপর নেতানিয়াহু এক বিবৃতিতে বলেন, তিনি এবং আবুধাবির যুবরাজ মোহাম্মদ বিন জায়েদ আল-নাহিয়ান পরস্পরকে সফরের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন।

[৪] আরব -ইসরাইল সম্পর্ক স্বাভাবিকীকরণ প্রক্রিয়া মধ্যস্থতা করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। তিনি টেলিফোনে সৌদি বাদশাহ সালমানকে ইসায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার কথা বলেছেন। প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে মধ্যপ্রাচ্য মার্কিন কূটনীতি যুক্তরাষ্ট্রের ভোটারদের ট্রাম্পের পক্ষে নেবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

[৫] আবুধাবির যুবরাজ নেতানিয়াহুর সঙ্গে বৈঠকের বিষয়টি টুইটার বার্তায় নিশ্চিত করে বলেছেন, তিনি এবং নেতানিয়াহু দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক জোরদার করার উপায় নিয়ে টেলিফোনে আলাপ করেছেন।

[৬] ফিলিস্তিনের সাধারণ জনগণ এবং সেখানকার বিভিন্ন সংগঠনের নেতাকর্মীরা ইসরাইলের ও আরব দেশগুলোর সম্পর্ক স্বাভাবিকীকরণের চুক্তিকে ফিলিস্তিনিদের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা বলে উল্লেখ করেছেন।

[৭] ইরান ইতিমধ্যে বলেছে দেশটি ইসরায়েলের দিক থেকে কোনো ক্ষতির সম্মুখিন হলে সেজন্যে আমিরাতকে ছাড় দেয়া হবে না।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত