প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] করোনাভ্যাক্সিন পাবার বৈশ্বিক প্রচেষ্টায় দ্বিগুণ গতি যোগ করেছে চীন

আসিফুজ্জামান পৃথিল: [২] শুরু থেকেই করোনাভাইরাস ভ্যাক্সিন পাবার একটি বৈশ্বিক চেষ্টা করা হয়েছিলো। কিন্তু এতে বাঁধা হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। মার্কিন ওষুধ প্রস্তুতকারকরাও চাননি, ব্যবসার বদলে একটি প্রায় দাতব্য কাজে অংশ নিতে। এর সুযোগ নিয়েছে চীন। ফলে লাভবান হয়েছে করোনা ভ্যাক্সিন তৈরির প্রকল্পও। সিএনএন

[৩] করোনার ভ্যাক্সিন তৈরিতে সর্বাগ্রে যারা রয়েছে তাদের একটি মডেরনা। তারা চলতি মাসে জানায়, ২৫ নভেম্বরের আগে তাদের ভ্যাক্সিন কোনওমতেই জররী ব্যবহারের অনুমোদন পাবার উপযোগী হবে না। এদিকে প্বার্শপ্রতিক্রিয়ার কারণে যুক্তরাষ্ট্রে বন্ধ রয়েছে অ্যাস্ট্রাজেনেকার ট্রায়াল। ফলে ৩ নভেম্বরের আগে ব্যাক্সিন পাবার ট্রাম্পিয় স্বপ্ন পুরোপুরি ফিকে হয়ে গেছে।

[৪] যুক্তরাষ্ট্রে ব্যাক্সিন প্রটোকলের কারণে কথিত ভ্যাক্সিন রেসে এগিয়ে গেছে চীন। সেদেশে রাজনৈতিক সিদ্ধান্তে বিভিন্ন নিয়ম এমনকি ব্যবসায়ীদেরও খাটো করে দেখা সম্ভব। যুক্তরাষ্ট্রে ক্ষমতার নিয়ন্ত্রণ অনেকটাই ব্যবসায়ীদের হাতে। তাই চীন এই সুযোগ একরকম লুফেই নিয়েছে।

[৫] চীন শুরু থেকেই বলে আসছে তাদের তৈরি ভ্যাক্সিন পাবে বন্ধুরাষ্ট্রগুলো। কিন্তু কোভেক্সে যোগ দিয়ে বেইজিং বুঝিয়ে দিয়েছে, তাদের ভ্যাক্সিন সস্তায় যদি মধ্য ও নি¤œ আয়ের দেশগুলো পায় সেটাতে তাদের কোনও আপত্তি নেই। এমনকি বন্ধু নয় এমন রাষ্ট্র পেলেও তাদের আপত্তি নেই।

[৬] চীনের সিনেব্যাকের ভ্যাক্সিন যেহেতু অনুমোদিতই আছে, এই সিদ্ধান্তে দ্বিগুন গতি পেলো জাতিসংঘের এই প্রকল্প। অনেক বিশেষজ্ঞ মনে করছেন, যুক্তরাষ্ট্রের আগেই কোনও নিম্ন আয়ের দেশ ভ্যাক্সিন পেলে অবাক হবার কিছু থাকবে না।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত