প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] শান্তিতে নোবেল পুরস্কার নিয়ে অনিয়মের অভিযোগ পুরনো

দেবদুলাল মুন্না: [২] এ অভিযোগ করেন ২০১৯ সালে নরওয়েজিন নোবেল কমিটির সেসময়ের সেক্রেটারি লিন্ডস্ট্যাড। তিনি বলেন, সবচেয়ে বড় অনিয়ম হলো ভারতের মহাত্মা গান্ধীকে কখনো নোবেল পুরস্কার না দেওয়া। গান্ধী পাঁচবার নোবেল পুরস্কারের জন্য শর্টলিস্টেড হয়েছিলেন । ১৯৪৬, ১৯৪৭, ১৯৪৮ ও দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের আগে দুবার। কিন্তু তাকে দেওয়া হয়নি। নোবেল পাননি স্টিফেন হকিং।

[৩] এবার শান্তিতে নোবেল পুরস্কারের জন্য মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নাম নিয়ে সৃষ্ট গুঞ্জনের মধ্যে গত বুধবার ব্যঙ্গাত্মক মন্তব্য করে আলোচিত হন অসলোর পিস রিসার্চ ইন্সটিটিউটের পরিচালক হেনরিক উর্দাল। তিনি নোবেল কমিটির একজন সদস্য। তিনি পুরস্কার ঘোষণার আগেই বলেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের শান্তিতে নোবেল পাওয়ার একেবারেই কোনো সম্ভাবনা নেই। কাউন্টার পাঞ্চ

[৪] স্লাভায় জিজেক পলিটিকোকে বলেন, গতবছর ইথিওপিয়ার প্রধানমন্ত্রী আবি আহমেদ আলী শান্তিতে নোবেল পান। ১৯৯৮ থেকে ২০০০ সাল পর্যন্ত ইথিওপিয়া ও ইরিত্রিয়ার মধ্যে সীমান্তে যুদ্ধ হয়েছিল। ২০১৮ সালের জুলাই মাসে সম্পর্ক পুনস্থাপিত হয়েছিল। কিন্তু এখনও ইরিত্রিয়ায় গণহত্যা চলছে। একইরকম মিয়ানমারের আন সান সুকিকে রোহিঙ্গা ইস্যুতে গণ আদালতে দাড়াতে হচ্ছে কিন্তু তাকে নোবেল প্রাইজ দেওয়া হয়েছিল শান্তিতে।

[৫] স্লাভায় জিজেক বলেন, পাকিস্তানের মালালাকে পুরষ্কার দেওয়া উদ্দেশ্যমুলক। তাকে পুরষ্কার দিয়ে ইসলামিক জঙ্গীগোষ্ঠীর অস্তিত্বকে বিশ্বব্যাপী প্রমাণ করা ছিল নোবেল কমিটির উদ্দেশ্য। গ্রেটা থানবার্গও এ জন্য এ বয়সেই শান্তিতে নোবেল ক্যাটাগরিতে নমিনেটেড হয়ে যান নোবেলের জন্য।

সর্বাধিক পঠিত