প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা পেলেন প্রতিবন্ধী প্রসূতি ও তার আশ্রয়দাতা

ডেস্ক রিপোর্ট: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অর্থ সহযোগিতা পেলেন ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে মানসিক প্রতিবন্ধী, তার সদ্যজাত শিশু ও তাদের আশ্রয়দাতা।

বুধবার সকালে কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া নগদ ৫৫ হাজার টাকা ও একটি ব্যাটারিচালিত ভ্যান পৌঁছে দেন ঝিনাইদহের জেলা প্রশাসক সরোজ কুমার নাথ।

এ সময় স্থানীয় সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজিম আনার, কালীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর সিদ্দিকী ঠান্ডু, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সুবর্ণা রানী সাহা, চিকিৎসক, সাংবাদিকসহ নানা শ্রেণি-পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

গত সপ্তাহে কালীগঞ্জের মায়াধরপুর গ্রামের রাস্তার পাশ থেকে প্রতিবন্ধী অন্তঃস্বত্বা নারীকে নিজ বাড়িতে আশ্রয় দেন ওই গ্রামের দিনমজুর আমজাদ আলী। গত শুক্রবার কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সেই নারী একটি কন্যা সন্তানের জন্ম দেন। আশ্রয় দেয়া ও সন্তান প্রসবের খবর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ গণমাধ্যমে প্রচার হলে তা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃষ্টিগোচর হয়। এ বিষয়ে জেলা প্রশাসককে তার সার্বিক সহযোগিতার নির্দেশ দেন।

আশ্রয়দাতা আমজাদ আলী একজন প্রান্তিক চাষী। তার মাঠে কোনো চাষযোগ্য জমি নেই। বর্গাচাষ ও কৃষিশ্রমিকের কাজ করে সংসাল চালান তিনি। এক মেয়ে আর এক ছেলের মধ্যে মেয়ের বিয়ে দিয়েছেন। ছেলে রাজমিস্ত্রির কাজ করে। কিন্তু সড়ক দুর্ঘটনার শিকার হয়ে ছেলে ছয় মাস ধরে শয্যাশায়ী। ফলে সংসারে এখন আমজাদ একমাত্র উপার্জনক্ষম সদস্য।

অভাবের সংসারের মধ্যেও আমজাদ আলীর এই অনন্য মানকিবতার দৃষ্টান্ত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বিগলিত করেছে। তার নির্দেশেই ওই প্রতিবন্ধী নারীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গত ২ অক্টোবর দুপুরে কালীগঞ্জ উপজেলা হাসপাতালে তিনি সন্তান প্রসব করেন। জানা গেছে, মা ও মেয়ে উভয়েই বর্তমানে সুস্থ আছেন।

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে আমজাদ আলীর ইচ্ছা অনুযায়ী তাকে একটি ব্যাটারিচালিত রিকশাভ্যান দেয়া হয়েছে।

প্রতিবন্ধী নারীটিকে করে দেয়া হয়েছে ‘প্রতিবন্ধী কার্ড’। প্রসূতি ও সদ্যজাতকে দেখভালের জন্য আমজাদের হাতে দেয়া হয়েছে নগদ ৫৫ হাজার টাকা। সূত্র: একুশে টিভি

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত