প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ফায়ার সার্ভিসের তৎপরতায় বাঁচলো আত্মহননের চেষ্টাকারী গাড়ি চালক

সুজন কৈরী : রাজধানীর খিলক্ষেতের কাওলায় শুক্রবার সকালে সিভিল এ্যাভিয়েশন স্টাফ কোয়াটার সংলগ্ন স্থানে একটি গাছে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টাকারী ব্যক্তিকে বাঁচিয়েছে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তর। উদ্ধার ওই ব্যক্তি হলেন মো. বাবুল মিয়া (৪৫)। তিনি সিভিল এ্যাভিয়েশনের গাড়ী চালক বলে জানা গেছে।

পুলিশ, বাবুলের পরিবার ও ফায়ার সার্ভিস বলছে, বাবুল মিয়া মাদকাসক্ত। এ জন্য দুই বছর আগে তার স্ত্রী তাকে ছেড়ে চলে গেছেন। বাবুল দুই ছেলে-মেয়র জনক। মাদকাসক্ত হওয়া পরিবার তাকে মাদকাসক্ত নিরাময় কেন্দ্রে ভর্তি করাতে চেষ্ট করে। শুক্রবার সকালে নিরাময় কেন্দ্র থেকে বাবুলকে নিতে গাড়ি যায়। কিন্তু বাবুল যেতে চান না। একপর্যায়ে সিভিল এ্যাভিয়েশন স্টাফ কোয়াটারের পাশে আমগাছের ডালে উঠে আত্মহত্যার উদ্দেশ্যে ফাঁসির রশি গলায় ঝুলিয়ে দেন। পরে পরিবারের সদস্যরা তাকে গাছ থেকে নামাতে চেষ্ট করে ব্যর্থ হন। খবর পেয়ে পুলিশ সদস্যরা গিয়ে বাবুলকে নামাতে চেষ্টা করেন। কিন্তু না পেরে খবর দেয়া হয় ফায়ার সার্ভিসকে। এরপর ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা গিয়ে কৌশল অবলম্বন করে বাবুলকে গাছ থেকে নামান।

এ বিষয়ে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের কুর্মিটোলা স্টেশনের সিনিয়র স্টেশন অফিসার মো. সফিকুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে স্টেশনের একটি টিম দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে পুলিশের সহযোগীতায় আত্মহত্যা করতে যাওয়া ব্যক্তিকে কৌশলে বুঝিয়ে গলার ফাঁসের রশি খুলে অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার করে। পরে তাকে বিমানবন্দর থানা পুলিশ এবং স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

বিমানবন্দর থানার এসআই মো. মাহবুব বলেন, পরিবারের সদস্যদের খবর পেয়ে পুলিশের একটি টিম গিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টাকারী বাবুলকে গাছ থেকে নামানোর চেষ্টা করা হয়। কিন্তু কোনোভাবেই বাবুল নামতে চাননি। পরে খবর দেয়া হলে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা গিয়ে বাবুলকে নামান।

তিনি আরও জানান, বাবুল দীর্ঘদিন ধরে মাদকাসক্ত। এজন্য পরিবার তাকে মাদকাসক্ত নিরাময় কেন্দ্রে ভর্তি করতে চায়। এটি জানতে পেরে বাবুল এমনটি করেছিলেন। বাবুলকে তার পরিবারের কাছে বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে।

 

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত