প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] আমতলী সরকারী কলেজে ভর্তিতে অতিরিক্ত টাকা আদায়!

আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি : [২] করোনার ভাইরাসের প্রাদূর্ভাবে অর্থনৈতিক অসচ্ছলতা উপেক্ষা করে বরগুনার আমতলী সরকারী কলেজে একাদ্বশ শ্রেনীর ভর্তিতে অতিরিক্ত টাকা আদায়ের অভিযোগ পাওয়া গেছে। অনলাইনে আবেদনকারী শিক্ষার্থীদের সেশন ফিসহ বিভিন্ন ফির নামে ২ হাজার ৭’শ ৫০ টাকা আদায় করছে বলে অভিযোগ শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের। কলেজে ভর্তির আসন সংখ্যা পুরণ হলেও ভর্তি ফি’র চারগুন ৪ হাজার ২’শ ৫০ টাকা নিয়ে ম্যানুয়াল পদ্ধতিতে ভর্তি করেছেন তারা।এতে বিপাকে পরেছে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা।

[৩] অধ্যক্ষ মোঃ মজিবুর রহমান বলেন, সঠিক নিয়ম ও বোর্ডের নির্ধারিত ফি নিয়েই ভর্তি কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে।

[৪] জানাগেছে, ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে একাদ্বশ শ্রেনীর ভর্তি কার্যক্রম গত ১২ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হয়। ওই কার্যক্রম এখনো চলমান রয়েছে। ভর্তি কার্যক্রম শুরু থেকেই আমতলী সরকারী কলেজে অতিরিক্ত টাকা নিয়ে ভর্তি করে আসছে। বরিশাল শিক্ষা বোর্ডের নোটিশ উল্লেখ আছে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে অর্থনৈতিক অসচ্ছলতায় উপজেলা পর্যায়ে সর্বসাকুল্যে ১ হাজার টাকা শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে কলেজ কর্তৃপক্ষ আদায় করতে পারবেন। কিন্তু আমতলী সরকারী কলেজ কর্তৃপক্ষ বোর্ডের নির্দেশনা উপেক্ষা করে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে সেশন ফি ১ হাজার টাকাসহ বিভিন্ন ফির নামে ২ হাজার ৭’শ টাকা ৫০ টাকা আদায় করছে। অনলাইনে আবেদনকারী শিক্ষার্থীদের ভর্তি বাবদ বোর্ডে টাকা জমা দেওয়ার নির্দেশনা নেই।

[৫] আমতলী সরকারী কলেজে আসন সংখ্যা ৪’শ ২০ টি। অনলাইনে ভর্তি পদ্ধতিতে ওই আসন সংখ্যা পুরণ হলেও আর্থিক লাভবানের জন্য কলেজ কর্তৃপক্ষ ম্যানুয়াল পদ্ধতিতে ভর্তি কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন। ম্যানুয়াল পদ্ধতিতে বোর্ডের নির্ধারিত ফি ১ হাজার টাকা আদায়ের নির্দেশনা রয়েছে। ওই টাকা বোর্ডের ব্যাংক ড্রাফটের মাধ্যমে জমা দিতে হবে। করোনাকালিন সময়ে আমতলী সরকারী কলেজ বোর্ডের নির্দেশনাকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে ম্যানুয়াল পদ্ধতির ভর্তিতে ৪ হাজার ২’শ ৫০ টাকা আদায় করছে। যা বোর্ডের নির্ধারিত ফি’র চেয়ে চারগুন। ইতিমধ্যে ম্যানুয়াল পদ্ধতিতে আমতলী সরকারী কলেজ ৩ শতাধিক শিক্ষার্থী ভর্তি করেছেন বলে কলেজ সুত্রে জানাগেছে।

[৬] বোর্ডের নির্ধারিত ফি’র চেয়ে অতিরিক্ত টাকা আদায় করায় শিক্ষার্থী ও অভিভাবকের মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করছে। শিক্ষার্থী ও অভিভাবকের অভিযোগ করোনাকালীন সময়ে সরকার টাকা কম নেয়ার নির্দেশ দিলেও কলেজ কর্তৃপক্ষ উল্টো অতিরিক্ত টাকা আদায় করেছে। অতিরিক্ত টাকা আদায়ের ঘটনা তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার দাবী জানিয়েছেন ভুক্তভোগীরা।

[৭] নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন শিক্ষার্থী বলেন, কলেজ কর্তৃপক্ষ সেশন ফি বাবদ ১ হাজার, ভর্তি ফরম বাবদ ৫’শ ও বোর্ডের ফির নামে অনলাইনে আবেদন প্রার্থীদের কাছ থেকে ২ হাজার ৭’শ ৫০ টাকা আদায় করেছে। ম্যানুয়াল পদ্ধতিতে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থী মোঃ মেহেদী, সুজন, নাজমুল ও স্বপন বলেন, ৪ হাজার ২’শ ৫০ টাকা দিয়ে ভর্তি হয়েছি। কিছু টাকা কম দিতে চেয়েছিলাম কিন্তু কলেজ কর্তৃপক্ষ তা নেয়নি।

[৮] নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন অভিভাবক বলেন, করোনাকালিন সময়ে অর্থনৈতিক অসচ্ছলতা বিবেচনা করে শিক্ষার্থীদের ভর্তিতে কম টাকা আদায়ের নির্দেশ দিলেও কলেজ কর্তৃপক্ষ তা না মেনে অতিরিক্ত টাকা আদায় করছে। তদন্ত সাপেক্ষে এর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার দাবী জানাই।

[৯] আমতলী সরকারী কলেজর অধ্যক্ষ মোঃ মজিবুর রহমান বলেন, সেশন ফি ১ হাজার টাকা ও বেতনসহ ৩২ টি আইটেমে অনলাইনে আবেদনকারী ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ২ হাজার ৭’শ ৫০ এবং ম্যানুয়াল পদ্ধতিতে ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ৪ হাজার ২’শ ৫০ টাকা আদায় করা হচ্ছে।
আমতলী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আসাদুজ্জামান বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই। খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেয়া হবে। সম্পাদনা : জেরিন আহমেদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত