প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] গফরগাঁওয়ে মৎস্য খামারে বিষ প্রয়োগ, থানায় লিখিত অভিযোগ

আজহারুল হক, ময়মনসিংহ: [২] ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলার এক মৎস্য চাষির ২৭ কাঠা জমির উপর স্থাপিত মৎস্য খামারে বিষ প্রয়োগ করে সমস্ত মাছ মেরে ফেলার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

[৩] শুক্রবার (২৫ সেপ্টেম্বর) ভোররাতে বিষ প্রয়োগের ঘটনা ঘটে।

[৪] সকালে পুকুরের মালিক রফিকুল ইসলাম রফিক মাছের এমন মৃত্যু দেখে হাউমাউ করে কাঁদতে শুরু করেন। তিনি অভিযোগ করেন, ‘শত্রুতা করে আমাকে সর্বস্বান্ত করা হয়েছে।

[৫] শুক্রবার রাতে এ ব্যাপারে তিনি গফরগাঁও থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

[৬] রফিকের মৎস্য খামারটি উপজেলার উথুরী গ্রামে। তার বাড়ি সংলগ্ন এই মৎস্য খামারটিতে দীর্ঘদিন যাবত তিনি মাছ চাষ করিয়া আসছেন।

[৭] শনিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) সকালে গিয়ে দেখা যায়, এখনো পড়ে আছে বেশ কিছু মরা মাছ। উৎসুক লোকজন মৃত মাছগুলো দেখছেন আর আফসোস করে বলছেন ‘এ কেমন শত্রুতা’।

[৮] মৎস খামার মালিক রফিক অভিযোগ করে বলেন, বাড়ির পাশেই ২৭ কাঠা (আড়াই একর) জমি খনন করে ব্যক্তি উদ্যোগে দুই বছর আগে মৎস্য খামার গড়ে তুলি। মৎস্য খামারটি গড়ে তোলার পর থেকেই রাতের অন্ধকারে এলাকার দূর্বৃত্তরা নানাভাবে হয়রানি করে আসছিল। বৃহস্পতিবার রাত একটা পর্যন্ত আমি খামারে পাহারায় ছিলাম। পরে বাড়ি চলে আসি। এর পর ধারনা করছি শুক্রবার ভোর রাতে দূর্বৃত্তরা খামারে বিষ প্রয়োগ করে বিভিন্ন প্রজাতির প্রায় ৮ লাখ মাছ মেরে ফেলেছে। দূর্বৃত্তরা শক্রতা করে আমাকে সর্বসান্ত করছে।

[৯] স্থানীয় গফরগাঁও ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান শামছুল আলম খোকন বলেন, খামারে বিষ প্রয়োগ করে মাছ নিধনের ঘটনাটি উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে অবহিত করেছি। আমি এমন ন্যাক্কার জনক ঘটনার সুষ্ঠ বিচার দাবি করছি।

[১০] এ ব্যাপারে গফরগাঁও থানার ওসি অনুকুল সরকার বলেন, শুক্রবার রাতে বিষ দিয়ে মাছ নিধনের ঘটনায় খামার মালিক থানায় একটি অভিযোগ দিয়েছেন। অভিযোগের প্রেক্ষিতে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। সম্পাদনা: হ্যাপি

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত