প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে সহযোগিতা জোরদার না হলে বাংলাদেশ ক্ষতিগ্রস্ত হবে, ওয়েবিনারে বক্তারা

কূটনৈতিক প্রতিবেদক: [২] ‘জনগণের প্রয়োজনের সময়ে জাতিসংঘ: বহুপক্ষীয় ব্যবস্থা নিয়ে পুনর্ভাবনা’ শীর্ষক ওয়েবিনারে মার্কিন উন্নয়ন অর্থনীতিবিদ জেফরি স্যাকস বলেন, বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে অভিন্ন নদী আছে এবং এদের মধ্যে সহযোগিতা প্রয়োজন।

[৩] বাংলাদেশে জাতিসংঘের দফতর ও নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির সেন্টার ফর পিস স্টাডিজ (সিপিএস) আয়োজিত ওয়েবিনারের তিনি বলেন, ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে সামরিক বিরোধ কাম্য হতে পারে না বরং তাদের বাণিজ্য ও সহযোগিতা বৃদ্ধি করা উচিত।

[৪] যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে গোটা পৃথিবীকে ভাগ করে দেওয়াটা একটি ভয়ঙ্কর চিন্তা রয়েচে। আমাদের উচিত হবে সহযোগিতার ওপর মনোযোগ দেওয়া এবং আমার বিবেচনায় পৃথিবীর বিভিন্ন অঞ্চল একে অপরকে সহযোগিতা করা দরকার।

[৫] অপর এক ওয়েবিনারে ভারতের অবজারভার রিসার্চ ফাউন্ডেশনের প্রেসিডেন্ট সামীর সরণ বলেন, বর্তমান দুনিয়া হচ্ছে এশিয়ার দুনিয়া এবং জাতিসংঘে এশিয়ার সঠিক প্রতিনিধিত্ব থাকতে হবে।

[৬] বাংলাদেশে জাতিসংঘের আবাসিক সমন্বয়কারী মিয়া সেপ্পো বলেন, জলবায়ু পরিবর্তন, নারীর প্রতি সহিংসতাসহ নানা ইস্যুতে তরুণদের ভূমিকা চোখে পড়ার মতো।

[৭] ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের অধ্যাপক ইমতিয়াজ আহমেদ বলেন, জাতিসংঘের খোলনলচে পরিবর্তনের সময় এসেছে।

[৮] ঢাকায় ইউরোপীয় ইউনিয়নের রাষ্ট্রদূত রেনসে তেরিঙ্ক বলেন, মানুষের কল্যাণে ভূমিকা রাখার স্বার্থে জাতিসংঘকে কাঠামো নয়, পরিকল্পনা অনুযায়ী কাজ করতে হবে। এই প্রেক্ষাপট থেকে ইইউ সেই শূন্যতা পূরণের জন্য কাজ করছে।

[৯] নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনিয়র ফেলো এবং সাবেক পররাষ্ট্রসচিব রাষ্ট্রদূত শহীদুল হক বলেন, শুধু দেশের জন্য কাজ না করে জনগণের প্রতি আরো বেশি মনোযোগী হওয়া উচিৎ জাতিসংঘের। সম্পাদনা: ইকবাল খান

সর্বাধিক পঠিত