প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মধ্যরাতে ৯৯৯ এ ফোন দিয়ে গৃহকর্ত্রীর নির্যাতন থেকে রক্ষা পেলেন গৃহকর্মী

সুজন কৈরী: পুলিশ পরিচালিত জাতীয় জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯ এ ফোন দিয়ে গৃহকর্ত্রীর নির্যাতন থেকে রক্ষা পেয়েছেন একজন নারী গৃহকর্মী। ফোন পাওয়ার পর পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই গৃহকর্মীকে উদ্ধার করে। পরে তার গ্রামের বাড়িতে পাঠানোর ব্যবস্থা করে।

জাতীয় জরুরি সেবার পরিদর্শক আনোয়ার সাত্তার কবলেন, মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১২টায় ৯৯৯ এ একজন নারী কান্নাজড়িত এবং ভীতসন্ত্রস্ত স্বরে ফোন দিয়ে জানান, তিনি রাজধানীর আদাবরের রিং রোডের জাপান গার্ডেন সিটির বহুতল ভবনের ১৮ নম্বর বিল্ডিংয়ের ১৪ তলার ১৩০৪ নম্বর ফ্ল্যাটে গৃহকর্মীর কাজ করেন। লুকিয়ে ফোন করেছেন, বাসার লোকজন জানতে পারলে মারধর করবে জানিয়ে ফোনে তিনি আরও বলেন, তার গ্রামের বাড়ি সাতক্ষীরা। তার স্বামী তাকে ছেড়ে চলে গেছে। গ্রামে বাবার বাড়িতে তার দুটি শিশু সন্তান আছে। তার এক আত্মীয়ের মাধ্যমে জাপান গার্ডেন সিটির বাসায় কয়েকমাস আগে গৃহকর্মী হিসেবে কাজ নিয়েছিলেন। তার স্বামীর মারধরে তার একটি হাত ভেঙ্গে গিয়েছিল। বাসায় কাজের চাপ বেশি। কিন্তু তিনি ভাঙ্গা হাত নিয়ে ভারী কাজ করতে পারছিলেন না। এজন্য তাকে বাসার গৃহকর্ত্রী সবসময় মারধর করেন।

ফোনে নির্যাতনের শিকার গৃহকর্মী জানান, তিনি কাজ করতে চাননা। গ্রামের বাড়ি চলে যেতে চান এবং প্রাণে বাঁচতে চান। কিন্তু বাসার লোকজন তাকে বাড়ি যেতে দিচ্ছেন না। জোর করে কাজ করচ্ছেন। এমনকি তার বাচ্চাদের সঙ্গেও ফোনে কথা বলতে দেয়া হয়না। কখনও ফোন দিলে তার ফোন কেড়ে নেয়া হয়। তিনি ৯৯৯ এর কাছে তাকে উদ্ধার করে তার জীবন বাঁচাতে এবং বাড়িতে পাঠানোর ব্যবস্থা করার অনুরোধ জানান।

এরপর ৯৯৯ তাৎক্ষনিক কলারের সঙ্গে আদাবর থানার ডিউটি অফিসারের কথা বলিয়ে দেয়। খবর পেয়ে থানা পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে যায়।

রাত দেড়টায় আদাবর থানার এসআই আনোয়ার ৯৯৯ কে ফোনে জানান, তিনি ঘটনাস্থলে গিয়ে গৃহকর্মীকে উদ্ধার করেন এবং ফ্ল্যাট মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদকের জিম্মায় বুঝিয়ে দেন। তিনি সকাল হলে কলারকে তার বাড়িতে পাঠানোর ব্যবস্থা নেবেন। এ বিষয়ে ৯৯৯ থেকে গৃহকর্মীকে ফোন করা হয়। তিনি জানান, তিনি তার বাড়িতে পৌঁছে গেছেন এবং প্রাণে বেঁচেছেন।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত