প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

দিল্লি হিংসা মামলায় গ্রেফতার JNU-র প্রাক্তন ছাত্রনেতা উমর খালিদ

ডেস্ক রিপোর্ট : উত্তর-পূর্ব দিল্লির গোষ্ঠী সংঘর্ষে জড়িত থাকার অভিযোগে জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন পড়ুয়া উমর খালিদকে গ্রেফতার করল দিল্লি পুলিশ। রবিবার রাতে তাঁকে গ্রেফতার করেছে দিল্লি পুলিশের বিশেষ সেল। ‘বেআইনি কার্যকলাপ নিরোধক আইনে’ (ইউএপিএ) তাঁকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে পুলিশের এক শীর্ষকর্তা জানিয়েছেন।

গত ফেব্রুয়ারি মাসের ২৩ থেকে ২৬ তারিখের মধ্যে উত্তর পূর্ব দিল্লির গোষ্ঠী সংঘর্ষে ৫৩ জনের মৃত্যু হয় এবং ৫৮১ জন আহত হন। মৃত ও আহত ব্যক্তিদের মধ্যে ৯৭ জনের শরীরে বন্দুকের গুলির ক্ষতও ছিল। দিল্লি পুলিশের দাখিল এই মামলার সাপ্লিমেন্টারি চার্জশিটে অভিযুক্তদের তালিকায় যুক্ত করা হয়েছে ভীম আর্মির প্রধান চন্দ্রশেখর, উমর খালিদ-সহ বেশ কিছু নেতার নাম। রক্তক্ষয়ী হিংসার ঘটনায় উমর খালিদ অন্যতম চক্রান্তকারী বলে এর আগেই দাবি করেছিল পুলিশের বিশেষ সেল।

শাহিন বাগের বিক্ষোভ মঞ্চে ভাষণ দেওয়া নিয়ে গত দু’মাসে উমর খালিদকে দু’বার জেরা করেন তদন্তকারী আধিকারিকরা। পুলিশের দাবি, আপের প্রাক্তন কাউন্সিলর তাহির হুসেইন এবং উমর খালিদ মিলে শহরে গোষ্ঠী হিংসা ছড়ানোর পরিকল্পনা করেছিলেন।

রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় ২০১৬ সালেও উমর খালিদ এক বার দিল্লি পুলিশের হাতে গ্রেফতার হন। সেই বার জেএনইউ-র ক্যাম্পাসে এক অনুষ্ঠানে ভারত বিরোধী স্লোগান দেওয়ার অভিযোগ উঠেছিল তাঁর বিরুদ্ধে। এই মামলায় নাম জড়ায় জওহারলাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদের প্রাক্তন সভাপতি কানহাইয়া কুমার, অনির্বাণ ভট্টাচার্য-সহ দশজন জেএনইউ পড়ুয়ার। ওই মামলায় ঘটনার তিন বছর পরে ২০১৯ সালে তাঁদের বিরুদ্ধে পুলিশ চার্জশিট পেশ করেছিল।

এদিকে, দিল্লি হিংসায় প্ররোচনাকারী হিসেবে দিল্লি পুলিশের পক্ষ থেকে সিপিআই(এম) সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি, অর্থনীতিবিদ জয়তী ঘোষ, স্বরাজ অভিযানের নেতা যোগেন্দ্র যাদবের নামও অতিরিক্ত চার্জশিটে উল্লেখ করা হয়েছে। তাঁরা ছাড়া দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক অপূর্বানন্দ এবং তথ্যচিত্র নির্মাতা রাহুল রায়ের নামও চার্জশিটে আছে। পুলিশের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, এঁরা প্রত্যেকেই ভারত সরকারের ভাবমূর্তি কালিমালিপ্ত করেছেন।

যদিও রবিবার বলা হয়েছে, সীতারাম ইয়েচুরিদের অভিযুক্ত হিসেবে চার্জশিটে নাম দেওয়া হয়নি। এক্ষেত্রে পুলিশের যুক্তি, অভিযুক্তদের একজন এই নেতাদের নাম বলায় তাঁদের নাম চার্জশিটে উল্লেখ করা হয়েছে, অভিযুক্ত হিসেবে নয়।সময়

 

সর্বাধিক পঠিত