প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] র‌্যাব-৭ এর পৃথক অভিযানে ১,৫৪,৩৮০ পিস ইয়াবাসহ ০৮ জন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক

রাজু চৌধুরী : [২] চট্টগ্রাম জেলা ও মহানগরীতে ০৪ টি পৃথক অভিযান চালিয়ে ১,৫৪,৩৮০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধারসহ ০৮ জন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‌্যাব-৭ এইসময় মাদক পরিবহণে ব্যবহৃত ০১ টি প্রাইভেট কার, ০১ টি ট্রাক এবং ০১ টি মোটর সাইকেল জব্দ।

[৩] শনিবার, র‌্যাব-৭ এর সিনিয়ির সহকারী পুলিশ সুপার, সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মোঃ মাহমুদুল হাসান মামুন জানান, চট্টগ্রাম ১১ ও ১২ সেপ্টেম্বর পৃথক অভিযান পরিচালিত হয়, কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী সিএনজি যোগে বিপুল পরিমাণ মাদকদ্রব্য নিয়ে কক্সবাজার হতে বাঁশখালীর দিকে আসছে সংবাদের ভিত্তিতে গত ১১ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় র‌্যাব-৭ এর একটি আভিযানিক দল চট্টগ্রাম জেলার বাঁশখালী থানাধীন পুকুরিয়া তেচরীপাড়াস্থ বাঁশখালী-চট্টগ্রাম সড়কের তৈলারদ্বীপ ব্রীজের টোল ইজারাদার অফিসের সামনে পাকা রাস্তার উপর একটি বিশেষ চেকপোস্ট স্থাপন করে গাড়ি তল্লাশি শুরু করে এ সময় সিএনজির ভিতর হতে তিনজন লোক দৌড়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে র‌্যাব সদস্যরা ধাওয়া করে আসামী ১। মোঃ ইসমাঈল(৩৮), পিতা- মোঃ রফিক, সাং- দক্ষিণ পাহাড়তলী, থানা- কক্সবাজার সদর, জেলা- কক্সবাজার, ২। সুমি আকতার(২৫), পিতা- তরিকুল ইসলাম, সাং- শান্তিনগর, থানা- চকরিয়া, জেলা- কক্সবাজার, বর্তমানে- সাং- কাশিনগর, থানা- চৌদ্দগ্রাম, জেলা- কুমিল্লা, ৩। অপ্রাপ্তবয়স্ক বাস্তুচ্যুত মিয়ানমারের নাগরিক’কে আটক করে। আসামীদের শনাক্ত মতে জুতার ভিতর হতে কৌশলে লুকানো অবস্থায় ৮,০০০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধারসহ আসামীদের’কে গ্রেফতার করা হয়। তাছাড়া গত ১১ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম জেলার পটিয়া থানাধীন উত্তর দেয়াং ভেল্লাপাড়া ওশান স্টেট এর সামনে কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়কের উপর একটি বিশেষ চেকপোস্ট স্থাপন করে গাড়ি তল্লাশি কালে একটি প্রাইভেট কার থেকে আসামী ১। মোঃ ইমাম হোসেন মজুমদার (২৬), পিতা- মোঃ জয়নাল আবেদীন মজুমদার, সাং- ফুলছড়ি, থানা- ফটিকছড়ি, জেলা- চট্টগ্রাম এবং ২। মোঃ মির হোসেন (২৯), পিতা- মোঃ আব্দুল খালেক, সাং- আজম নগর, থানা- মীরসরাই, জেলা- চট্টগ্রামদের’কে আটক করে। উল্লেখ্য যে, উক্ত সময় ০১ জন আসামী পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। তাদের দেখানো ও শনাক্ত মতে প্রাইভেট কারের দরজার ভিতরে বিশেষ কৌশলে লুকানো অবস্থায় ৭৭,০০০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধারসহ উক্ত প্রাইভেট কার (চট্র-মেট্রো-গ-১২-৯৫০৬) জব্দ করা হয়।

[৪] আরেকটি গোপন তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-৭ একটি আভিযানিক দল চট্টগ্রাম মহানগরীর বাকলিয়া থানাধীন হাফেজ নগর শাহ আমানত সংযোগ, পূর্ব বাকলিয়ায় অবস্থিত আল মদিনা কমিনিউটি হল এর সামনে একটি বিশেষ চেকপোস্ট স্থাপন করে গাড়ি তল্লাশি করে। এ সময় র‌্যাবের চেকপোস্টের দিকে আসা একটি মোটর সাইকেলের সাইড কভারের ভিতর বিশেষ কায়দায় লুকানো অবস্থায় ১৯,৩৮০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধারসহ উক্ত মোটর সাইকেলটি (চট্র-মেট্রো-ল-১৫-৯৫৪৯) জব্দ করা হয়। এবং আসামী মোঃ আরাফাত হোসেন (২৩), পিতা- আবদুল মজিদ, সাং- মীর্জাখিল জামাদার পাড়া, থানা- সাতকানিয়া, জেলা- চট্রগ্রাম’কে আটক করে। শনিবার ১২ সেপ্টেম্বর বিকেলে চট্টগ্রাম মহানগরীর বায়েজিদ বোস্তামি থানাধীন ০২ নং জালালাবাদ ওয়ার্ডের আরেফিন নগর বাজারে কক্সবাজার হতে ঢাকাগামী মহাসড়কের উপর একটি বিশেষ চেকপোস্ট স্থাপন করে গাড়ি তল্লাশি শুরু করে এ সময় না থামিয়ে দ্রুত পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে র‌্যাব সদস্যরা ধাওয়া করে আসামী ১। ইমরান (২৬), পিতা-রফিকুল ইসলাম, সাং-পারসিয়া খাল, থানা- পেকুয়া, জেলা- কক্সবাজার এবং একজন কিশোর’কে আটক করে তাদের শনাক্ত মতে ট্রাকের উপরে কথিত মুকুটের ভিতরে বিশেষভাবে রক্ষিত অবস্থায় ৫০,০০০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধারসহ উক্ত ট্রাকটি (চট্ট-মেট্টো -ট-১১-৮৩২৬) জব্দ করা হয়। উদ্ধারকৃত মাদকের আনুমানিক মূল্য ০৭ কোটি ৭১ লক্ষ ৯০ হাজার টাকা এবং আটককৃত প্রাইভেট কার, ট্রাক এবং মোটর সাইকেলের আনুমানিক মূল্য ৭৭ লক্ষ টাকা। গ্রেফতারকৃত আসামী এবং উদ্ধারকৃত মালামাল সংক্রান্তে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্তে চট্টগ্রাম জেলা ও মহানগরীর সংশ্লিষ্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে বলেও জানান র‌্যাব-৭ কর্মকর্তা মোঃ মাহমুদুল হাসান মামুন।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত