প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] রাউজানে কচু চাষে লাভবান কৃষকরা

শাহাদাত হোসেন: [২] রাউজানের ১৪টি ইউনিয়ন ও পৌরসভার বিভিন্ন এলাকায় ফসলী জমিতে কচু চাষ করে লাভবান হচ্ছে কৃষকরা। উপজেলার এসব এলাকায় ২৬ হেক্টর ফসলী জমিতে কচু ক্ষেতের চাষাবাদ করা হয়েছে।

[৩] কচু একটি পুষ্টিকর সবজি। অল্প খরচে কচু চাষা করা যায়। নেই কোনো ঝুঁকি।পরিচর্যাও করতে হয় কম। তাই কচু চাষের দিকে আগ্রহ বাড়ছে কৃষকদের। দেশে বিভিন্ন জাতের কচু রয়েছে।পাইন্যে কচু,মদন কচু, মান কচু, গুরি কচু, ওল কচু, বাংলা কচু।

[৪] এরমধ্যে বাংলা কচু ও মান কচু ছাড়া বাকি সব কচুর চাষ করে থাকেন কৃষকেরা। তবে মান কচু কিছু কিছু মানুষের বাড়ীর আঙ্গিনায় রয়েছে। রাউজান পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের শরীফ পাড়ার পাশে কাঁশখালী খালের দু’তীরে শরীফ পাড়া ও হাজী পাড়ার কয়েকজন কৃষক কচু ক্ষেতের চাষাবাদ করেছেন। এরমধ্যে শরীফ পাড়ার কৃষক মুসলিম ২৪ শতক জমিতে, মোহাম্মদ উল্লাহ ১৬ শতক, সুমন ২৬ শতক, আবু ৪০ শতক, আবু তাহের ১৬ শতক, বাবলু ১৮ শতক, সেকান্দর ১৬ শতক, সেলিম ৩৬ শতক, সোলায়মান ২০ শতক জমিতে কচু ক্ষেতের চাষাবাদ করেন।

[৫] শরীফ পাড়ার কৃষক মোহাম্মদ উল্লাহ বলেন, ১৬ শতক জমিতে কচু চাষ করতে তার খরচ ১২হাজার টাকা।কচু ক্ষেত থেকে এপর্যন্ত কচু ও কচুর লতি, ফুফা বিক্রয় করেছেন ১৫ হাজার টাকা। তিনি আশা করছেন তার কচু ক্ষেত থেকে আরো ৩৫ হাজার টাকার কচু বিক্রয় করতে পারবে।

[৬] ফসলী জমিতে কচু চাষ করে কচুর লতি, কচু বিক্রয় করে কৃষকেরা লাভবান হচ্ছে বেশী।ধান চাষের চেয়ে প্রায় পাঁচগুণ বেশি লাভজনক হওয়ায় কচু চাষে আগ্রহ বাড়ছে কৃষকদের।

[৭] রাউজান উপজেলা উপ-সহকারী কৃষি অফিসার সজর কুমার চন্দ বলেন, রাউজানে কচু ক্ষেতের চাষাবাদ লাভজনক হওয়ায় কৃষকেরা কচু চাষের দিকে ঝুঁকে পড়ছে। কচু অন্যান্য সবজির চেয়ে স্বাদ ও পুষ্টিগুণ বেশী থাকায় কচুর চাহিদাও দিন দিন বাড়ছে। কচু চাষের পর কৃষকেরা ওই জমিতে অন্যান্য ফসলও চাষাবাদ করতে পারবেন বলেও জানান তিনি। সম্পাদনা: হ্যাপি

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত