প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] নির্বাচন সংশ্লিষ্ট যেকোনো আইন করতে হলে রাজনৈতিক দলগুলোর মতামত নেয়া অপরিহার্য : মির্জা ফখরুল

শাহানুজ্জামান টিটু : [২] বিএনপি মহাসচিব আরো বলেন, নির্বাচন কমিশনের প্রধান অংশীজন হচ্ছে রাজনৈতিক দলসহ নির্বাচন সংশ্লিষ্টরা। কিন্তু নির্বাচন কমিশন আইন সংশোধনে রাজনৈতিকদলসহ অংশীজনদের সঙ্গে আলোচনা করার প্রয়োজন বোধ করেনি। ইসির এ উদ্যোগ শুধু রাজনৈতিক দলসমূহকেই ক্ষুব্ধ করেনি, খোদ নির্বাচন কমিশনের একজন সদস্যও সুস্পষ্টভাবে আপত্তি জানিয়েছেন।

[৩] মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, প্রাথমিক খসড়ায় প্রার্থিতা বাতিল ও জরিমানার বিষয়টি ছিল। পরে বাদ দেওয়া হয়েছে। এর মাধ্যমে প্রমাণিত হয় কমিশনের সিদ্ধান্ত সম্পর্কে খোদ কমিশনাররা অজ্ঞাত থাকেন। নিঃসন্দেহে এটা নির্বাচন কমিশনের স্বেচ্ছাচারিতা। এ ধরনের স্বেচ্ছাচারিতাই মূলত দেশের নির্বাচনী ব্যবস্থাপনাকে ধ্বংস করেছে।

[৪] তিনি বলেন, রকিবউদ্দিন কমিশন থেকে শুরু করে এ পর্যন্ত নির্বাচনী আইনে যে পরিবর্তন হয়েছে সেটার দুইটা দিক আছে। একটা হচ্ছে নির্বাচন ব্যবস্থাকে পুরো ধ্বংস করা, আরেকটা হচ্ছে কমিশনকে দুর্বল ও অকার্যকর করা। ইতোমধ্যে বর্তমান কমিশন তার বিশ্বাসযোগ্যতা হারিয়েছে। সবচেয়ে পরিতাপের বিষয়, এ সময় যে কাজে তাদের একান্তভাবে নিবিষ্ট থাকা দরকার সেই আরপিওসহ বিদ্যমান নির্বাচনী আইনগুলোর সঠিক ও কঠোর প্রয়োগ না করে কমিশন অকাজে ব্যস্ত হয়েছে।

[৫] বৃহস্পতিবার গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে একথা বলেন বিএনপি মহাসচিব। সম্পাদনা : রায়হান রাজীব

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত