প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] লক্ষ্মীপুরে কৃষক নির্যাতনের ঘটনায় ইউপি সদস্যসহ ২জন কারাগারে

জাহাঙ্গীর লিটন, লক্ষ্মীপুর : [২] জেলায় চুরির অপবাদ দিয়ে এক কৃষককে গাছের সাথে বেঁধে বর্বর নির্যাতনের ঘটনার পর অনলাইন আমাদের সময় নিউজ পোর্টালসহ কয়েকটি গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশের পর আইন শৃঙ্খলা বাহিনী ঘটনা সরেজমিনে পরিদর্শন করে ঘটনার সত্যতা পাওয়ায় লক্ষ্মীপুর সদর থানায় একটি মামলা হয়। গতকাল এ মামলার ভিত্তিতে স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. আবদুর রহমান স্বপনসহ দুইজনকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

[৩] রোববার জেলা সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রায়হান চৌধুরীর আদালতে মামলার প্রধান আসামী চররমনী মোহন ইউপি চেয়ারম্যান আবু ইউসুফ ছৈয়াল, ২য় আসামী ইউপি সদস্য মো. স্বপন ও ৩য় আসামী মো. সোহাগ আত্মসমর্পন করেন। আদালত মামলার প্রধান আসামী ইউসুফ ছৈয়ালকে জামিন দেন এবং বাকী দুইজনকে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

[৪] বাদি পক্ষের আইনজীবি এড. মহসিন কবির মুরাদ বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ইউপি চেয়ারম্যান আবু ইউসুফ ছৈয়াল ও ইউপি সদস্য স্বপনসহ তিনজন রবিবার আদালতে হাজির হলে আদালত প্রধান আসামীকে জামিন মঞ্জুর করেন এবং অন্য দুই আসামীর জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে প্রেরণ করার নির্দেশ দিয়েছেন।

[৫] তিনি সাংবাদিকদের জানান, কৃষক আমির হোসেনকে মারধরের ঘটনায় তিনি ৮ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাত ৭-৮ জনের বিরুদ্ধে সদর থানায় মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় পূর্বে গ্রেফতারকৃত তিনজন আসামীও জামিনে আছেন। আর অন্য দুইজন পলাতক রয়েছে।

[৬] উল্লেখ্য, গত ২৩ আগষ্ট রাতে ঘরের ফেরার পথে কৃষক আমির হোসেনকে চুরির অপবাধ দিয়ে ইউপি চেয়ারম্যানের নির্দেশে প্রতিবেশী সোহাগ, জুলহাস, আরিফ হোসেন ও দেলু নামে কয়েকজন ব্যক্তি আটক করে গাছের সাথে বেঁধে ববর্র নির্যাতন চালায়।

[৭] এক পর্যায়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আবু ইউসুফ ছৈয়াল ও ইউপি সদস্য স্বপনকে খবর দেয় তারা। পরে ইউপি সদস্যের উপস্থিতিতেও বেধম মারধর করা হলে জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন ওই কৃষক। তার শোর চিৎকারে পরিবারের লোকজন এগিয়ে এলে আমির হোসেনকে ইউপি সদস্য স্বপনের বাড়িতে নিয়ে একটি সালিশ বৈঠকের আয়োজন করে চেয়ারম্যান। সেখানে তার কাছ থেকে সাদা কাগজে স্বাক্ষর নিয়ে পরিবারের হাতে তুলে দেন। সম্পাদনা:জেরিন আহমেদ

 

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত