প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মো. রাফিউজ্জামান সিফাত: এসি দুর্ঘটনার বড় কারণ রক্ষণাবেক্ষণের অভাব, বিস্ফোরণ ঠেকানোর উপায়

মো. রাফিউজ্জামান সিফাত: [১] রুমের লোড অনুপাতে এসি ব্যবহার না করলে, এতে এসিটি অনেকক্ষণ ধরে চলতে হয়, সেই সঙ্গে অতিরিক্ত গরম হয়ে যায়। তা থেকে বিস্ফোরণের সম্ভাবনা রয়েছে। [২] নিম্নমানের এসির ভেতরে ফ্যান, তারের, বিদ্যুতের ব্যবস্থাগুলো ঠিক থাকে না। ফলে সেখানেও কারিগরি ত্রুটি দেখা যায়, যা অনেক সময় আগুনের সূত্রপাত করতে পারে। [৩] এসি দুর্ঘটনার আরেকটি বড় কারণ রক্ষণাবেক্ষণের অভাব। ফলে কারিগরি ত্রুটির কারণে এসিতে আগুন ধরে যেতে পারে বা এসির গ্যাসে আগুন লেগে সেটি ঘরে ছড়িয়ে পড়তে পারে। [৪] অনেক সময় উইন্ডো এসির সামনে জানালা বা দরজার পর্দা চলে এলে বাতাস চলাচলে বাধাগ্রস্ত হয়। সেটিও এসিকে গরম করে তুলতে পারে। [৫] সঠিক স্পেকের পাওয়ার ক্যাবল ব্যবহার না করলে। [৬] এসির কনডেনসার এ ময়লা থাকলে কম্প্রেসারে হাই টেম্পারেচার এবং হাই প্রেশার তৈরি হয়ে। [৭] এসির ভেতরের পাইপের কোথাও ব্লকেজ হলে, হাই প্রেশার তৈরি হয়ে কম্প্রেসার ব্লাস্ট হতে পারে। [৮] কম্প্রেসারের লিমিটের চেয়ে বেশি রেফ্রিজারেন্ট (ৎবভৎরমবৎধহঃ) চার্জ করলে এবং সঠিক পদ্ধতিতে রেফ্রিজারেন্ট চার্জ না করলে হাই প্রেশার তৈরি হয়ে। [৯] কম্প্রেসারে প্রয়োজনীয় পরিমাণ রেফ্রিজারেন্ট না থাকলে ভেতরের তাপমাত্রা লিমিটের চেয়ে বেড়ে গিয়ে। [১০] সঠিকভাবে এসির ভ্যাকুয়াম না করলে। [১১] সঠিক রেটিং এর সার্কিট ব্রেকার ব্যবহার না করলে।

এসি বিস্ফোরণ থেকে রক্ষা পাওয়ার উপায় : [১] ভালো মানের এবং সঠিক স্পেকের পাওয়ার ক্যাবল ব্যবহার করা। [২] এসির কনডেনসার নিয়মিত পরিস্কার রাখা। [৩] কম্প্রেসারের হাই টেম্পারেচার এবং হাই প্রেশার তৈরি হচ্ছে কিনা পরীক্ষা করা। [৪] এসির ভিতরের পাইপের কোথাও ব্লকেজ আছে কিনা পরীক্ষা করা। [৫] ক¤েপ্রসারের প্রয়োজনীয় পরিমাণ রেফ্রিজারেন্ট আছে কিনা তা অভিজ্ঞ টেকনিশিয়ান দ্বারা পরীক্ষা করা। [৬] ক¤েপ্রসারের লিমিটের চেয়ে বেশি রেফ্রিজারেন্ট চার্জ না করা এবং সঠিক পদ্ধতিতে রেফ্রিজারেন্ট চার্জ করা। [৭] সঠিকভাবে এসির ভ্যাকুয়াম করা। [৮] বিশ্বস্ত এবং নির্ভরযোগ্য ব্র্যান্ডের এসি, ক¤েপ্রসার এবং রেফ্রিজারেন্ট ব্যবহার করা। [৯] নিম্নমানের অখ্যাত কিংবা নকল ব্র্যান্ডের এসি এবং কম্প্রেসার কেনা এবং ব্যবহার থেকে বিরত থাকা। [১০] সঠিক রেটিংয়ের সার্কিট ব্রেকার ব্যবহার করা। [১১] বারান্দা কিংবা খুব কাছে না রেখে ঘরের বাইরে এসি আউটডোর সেট করা। [১২] দীর্ঘদিন পর এসি চালু করার আগে একজন দক্ষ সার্ভিস এক্সপার্ট দিয়ে এসিটি পরীক্ষা করে নেওয়া। ফেসবুক থেকে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত