প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

চীনের ‘এলন মাস্ক’ হিসেবে পরিচিত উইলিয়াম লি ‘বিলিওনারি’ খেতাব ফিরে পেলেন

রাশিদ রিয়াজ : গত মে মাসের পর থেকে চীনের বৈদ্যুতিক গাড়ি কোম্পানি নিও’র মালিক উইলিয়াম লি ফের মুনাফার মুখ দেখছেন। একই সময়ে তার কোম্পানির শেয়ার মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে ৪৭২ শতাংশ। মার্কিন বৈদ্যুতিক গাড়ি টেসলার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে চীনে নিও একই ধরনের গাড়ি তৈরি করে ক্রেতাদের বিপুল সাড়া পেতে শুরু করেছে। কোভিড মন্দার পর নাটকীয়ভাবে ব্যবসা ফিরে পেয়ে কপাল খুলে গেছে উইলিয়াম লি’র। ফোর্বস

অথচ কোভিড মন্দায় ডুবতে বসেছিল নিও। ক্রেতা না পেয়ে উইলিয়াম লি’র সম্পদের পরিমান হ্রাস পাওয়ায় বিলিওনারি তালিকা থেকে ছিটকে গিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু সঠিক কৌশল নিয়ে সাশ্রয়ের সাথে সাথে পুঁজিবাজার থেকে বিনিয়োগকারী খুঁজে পাওয়ায় উইলিয়ামের কোম্পানি দ্রুত মুনাফা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। জুন পর্যন্ত ৫ বিলিয়ন ইউয়ান বা ৭৩৩ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করতে সংগ্রহ করতে পেরেছে তার কোম্পানি। প্রথম প্রান্তিকে উইলিয়ামের গাড়ি বিক্রয়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ১৯৪ মিলিয়ন ডলারের। কিন্তু বিক্রি হয়েছে এর দ্বিগুণ। দ্বিতীয় প্রান্তিকে ১০ হাজার ৩৩১টি গাড়ি বিক্রি ও রফতানির মধ্যে দিয়ে নিও আসলে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে তিনগুণ মুনাফা অর্জন করতে যাচ্ছে। এতে আয় হবে ৩.৭২ বিলিয়ন ইউয়ান। এবং কোভিড পরবর্তী গাড়ি বিক্রির রেকর্ড হতে যাচ্ছে এটি।

নাসডাকে উইলিয়াম লি’র শেয়ার মূল্য ছিল গত ২২ মে পর্যন্ত ৫৭২.৪ মিলিয়ন ডলার, যা বৃদ্ধি পেয়েছে ২.৯ বিলিয়ন ডলারে। সাংহাই ভিত্তিক অটোমোটিভ বাজার পরামর্শক ইয়ালে ঝ্যাং বলেন নিও বাজার খুঁজে পেয়েছে এবং বিনিয়োগকারী পাওয়ায় ভাল সেবার মাধ্যমে গাড়ি বিক্রি বৃদ্ধি করতে পারছে। আগস্ট নাগাদ কোম্পানিটি সাড়ে ১১ হাজার গাড়ি সরবরাহ করবে। ফলে কোম্পানির গড় লাভ ডাবল ডিজিটে পৌঁছাবে। একই সঙ্গে খুচরা যন্ত্রাংশ সরবরাহ খরচে সাশ্রয় সৃষ্টি করতে পারবে কোম্পানিটি।
বিনিয়োগকারীরা নিও’র শেয়ারের দিকে আগ্রহ দেখাচ্ছে ভবিষ্যতে কোম্পানিটির ব্যবসা বৃদ্ধির সম্ভাবনাকে লক্ষ্য রেখেই। আগস্টে নিও মার্কিন ডিপোজিটরি শেয়ারের অফারকে ২০ শতাংশ বৃদ্ধি করে (প্রতিটি ১৭ ডলারে ) সাড়ে ৮৮ মিলিয়ন শেয়ার বিক্রি করতে সমর্থ হয়। সাংহাই ভিত্তিক পরামর্শক প্রতিষ্ঠান অলিভার উইম্যানের বিশ্লেষক টেং ইয়ং বলেন মার্কিন গাড়ি কোম্পানি টেসলার বৈদ্যুতিক গাড়ি বিক্রি ৬ গুণ বৃদ্ধি পেয়েছে একই সঙ্গে চীনে এ কোম্পানির চাহিদা সৃষ্টি হওয়ার পাশাপাশি অন্যান্য চীনা গাড়ি কোম্পানি টেসলার সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় এগিয়ে এসেছে। এর আগে নিও’র স্থানীয় প্রতিদ্বন্দ্বী কোম্পানি এক্সপেং ও লি অটো বৈদ্যুতিক গাড়ি তৈরির উদ্যোগ নিয়েছে। এক্সপেংয়ের প্রতিষ্ঠাতা হি জিয়াওপেংয়ের সম্পদের পরিমান বৃদ্ধি পেয়ে দাঁড়িয়েছে ৪.১ বিলিয়ন ডলার। নিউইয়র্ক স্টক এক্সচেঞ্জে আইপিও ছাড়ার সময় তার সম্পদের পরিমান ছিল ১.২ বিলিয়ন ডলার। অন্যদিকে লি অটো কোম্পানির মালিক লি ঝিয়াং গত জুলাইতে প্রথমবারের মত বিলিওনারি তালিকায় স্থান করে নিয়েছেন। নাসডাকে তার কোম্পানির শেয়ার বাজার মূল্য দাঁড়িয়েছে ১.১ বিলিয়ন ডলার।

গত জুলাইয়ে চীনের বাজারে গাড়ি বিক্রি হয়েছে মোট ৯৮ হাজার। গত বছরের তুলনায় তুলনায় তা ১৯ শতাংশ বেশি। চায়না এ্যাসোসিয়েশন অব অটোমোবাইল ম্যানুফাচারার্স বলছে কোভিডের পর গাড়ির বাজার বিক্রেতারা ক্রেতাদের পুনরুদ্ধার করতে শুরু করেছেন। অথচ গত বছর নিও’র অবস্থা এমন দাঁড়ায় যে ক্রেতারা দুশ্চিন্তায় পড়ে যায় যে কোম্পানিটি হয়ত বিনিয়োগের জন্যে তহবিল যোগাতে পারবে না। কিন্তু পরিস্থিতিকে বাগে আনতে সমর্থ হয়েছে নিও।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত