প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

গত জুন থেকে এ বছরের মে বিশ্বতারকারা আয় করেছেন ৬.১ বিলিয়ন ডলার

রাশিদ রিয়াজ : গত বছর অভিনেত্রীদের চেয়ে অভিনেতারা ৪৬৭ মিলিয়ন ডলার বেশি আয় করেছেন। ফোর্বস সেলিব্রেটি ওয়ান হানড্রেড লিস্ট বলছে একই বছর নেটফ্লিক্স, এ্যাপেল ও অ্যামাজন তারকাদের দিয়েছে ৩০ কোটি ডলার। তবে অভিনেতারা এসময়ে সাড়ে ৫৪৫ মিলিয়ন আয় করলেও অভিনেত্রীরা কামিয়েছেন সাড়ে ৭৮ মিলিয়ন ডলার। ফোর্বসের তালিকার শীর্ষে রয়েছেন কাইলি জেনার যিনি আয় করেছেন ৫৪০ মিলিয়ন ডলার, এরপর আছেন কানিয়ে ওয়েস্ট ১৭০ ডলার ও তারপর টেনিস তারকা রজার ফ্রেদেরার ১০৬.৩ মিলিয়ন ডলার। শীর্ষ উপার্জনকারী অভিনেতা ডোয়াইন জনসন ও অভিনেত্রী হচ্ছে সোফিয়া ভার্গারা। জনসনের আয় হয়েছে সাড়ে ৮৭ মিলিয়ন ডলার। আর সোফিয়া ভার্গারা আয় করেছেন ৪৩ মিলিয়ন ডলার। আগামী বছর নেটফ্লিক্স, অ্যাপেল ও অ্যামাজন বেতন হিসেবে তারকাদের দেবে ১০ কোটি বা ১’শ মিলিয়ন ডলার। এর মানে টেলিভিশন ও চলচ্চিত্র খাত সচল হয়ে ওঠার ইঙ্গিত মিলছে।

এবছর নেটফ্লিক্সের সবচেয়ে জনপ্রিয় অনুষ্ঠানগুলো হচ্ছে টাইগার কিং, মার্ডার ও মায়হেম এন্ড ম্যাডনেস। এসব অনুষ্ঠান ফোর্বসের জনপ্রিয়তার র‌্যাঙ্কিংয়ে টানা ২৭ দিনের রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে। এছাড়া ওজরাক, আউটার ব্যাংকস, অবতার, দি লাস্ট এয়ারবেন্ডর ও রিয়েলিটি শোক লাভ ইজ ব্লাইন্ড তো আছেই। বিশ্বের উঁচু অর্জনের তারকারা কর দেয়ার আগে মোট আয় করেছেন গত বছর জুন থেকে এবছর মে মাস পর্যন্ত ৬.১ বিলিয়ন ডলার। যা এর আগের বছরের তুলনায় হ্রাস পেয়েছে ২০ কোটি ডলার।

কোভিডের কারণে অনেক স্টেডিয়াম বন্ধ থাকায় কনসার্ট, চলচ্চিত্র প্রদর্শনী বন্ধ হয়ে গেছে। ক্রীড়ার আয়োজনও বন্ধ রয়েছে। তবে তারকদের আয়ের সিংহভাগ চলে যায় অভিনেতাদের পকেটে। এক্ষেত্রে অভিনেত্রীরা রয়েছেন পিছিয়ে। ফোর্বস তালিকায় সোফিয়া ভার্গারা ৭১ ও এ্যাঞ্জেলিনা জোলি রয়েছে ৯৯তম স্থানে। মাত্র এ দুজন অভিনেত্রী তালিকায় স্থান পেয়েছেন।
গত বছর অভিনেত্রীদের আয় ছিল ৯৯ মিলিয়ন। ২০১৬ সালে এ আয় ছিল ১২২ মিলিয়ন। তবে প্রসাধনি কোম্পানির আয়ে ফোর্বস তালিকার শীর্ষে উঠতে সক্ষম হন কাইলি জেনার। তিনি তার কোম্পানির ৫১ শতাংশ শেয়ার বিক্রি করেন ৬০ কোটি ডলার বা ৬’শ মিলিয়নে। তারপরও ৯০ কোটি ডলার রয়ে গেছে কাইলির।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত