প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] বাংলাদেশের অকৃত্রিম বন্ধু ও ভারতের প্রথম বাঙালি রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জি মারা গেছেন

আসিফুজ্জামান পৃথিল: [২] এই প্রবীণ রাজনীতিবীদ ও ভারতরত্ন সোমবার সন্ধ্যায় দিল্লির আর্মি রিসার্চ অ্যান্ড রেফারেল হাসপাতালে মারা যান। তিনি একইসঙ্গে মস্তিস্কের রক্ত জমাটবাঁধা এবং ফুসফুসের সংক্রমণে ভুগছিলেন। তার কোভিড-১৯ পজেটিভ ছিলো। বয়স হয়েছিলো ৮৪ বছর।

[৩] ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে প্রথম রাজনীতিবীদ হিসাবে প্রণব মুখার্জি আনুষ্ঠানিকভাবে বাংলাদেশকে সমর্থন দানের প্রস্তাব পার্লামেন্টে তোলেন। তিনি নিজ স্মৃতিকথায় বলেছেন, বাংলাদেশের মানুষ যখন মুক্তি সংগ্রামে ঝাঁপিয়ে পড়েছিল তখন আমি ৩৬ বছরের এক তরুণ এমপি। বাংলাদেশের প্রবাসী সরকারকে ভারতের সমর্থন দানের জন্য ১৯৭১ সালের ১৫ জুন ভারতের রাজ্যসভায় আমি প্রস্তাব উত্থাপন করেছিলাম। একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের জন্য ২০১৩ সালে প্রণব মুখার্জির হাতে বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ সম্মাননা তুলে দেয়া হয়।

[৪] প্রণব মুখার্জির জন্ম ১৯৩৫ সালের ১১ ডিসেম্বর পশ্চিমবঙ্গের বীরভূম জেলার বোলপুরে। ১৯৬৯ সালে তিনি কংগ্রেসের হয়ে রাজ্যসভার সদস্য নির্বাচিত হন। ২০০২ সাল পযন্তÍ পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষে সদস্য হিসেবে টানা দায়িত্ব পালন করেছেন। ২০০৪ থেকে ১২ সাল পর্যন্ত ছিলেন লোকসভার এমপি। এ সময় লোকসভার নের্তৃত্বও ছিলো তার হাতে। ১৯৮০ থেকে ৮৪ সাল পর্যন্ত কংগ্রেসের হয়ে রাজ্যসভার নেতার দায়িত্ব পালন করেন। তিনি বিভিন্ন দফায় ভারতের অর্থ, প্রতিরক্ষা ও পররাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্বও পালন করেছেন।

[৫] ২০১২ সালে ভারতের ১২তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন এই রাজনীতিবীদ। ২০১৭ সালের ২৫ জুলাই পর্যন্ত সে দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। তার স্ত্রী রবীন্দ্র সংগীত শিল্পী শুভ্রা মুখোপাধ্যায় ছিলেন এই বাংলাদেশের নড়াইলের মেয়ে। ২০১৫ সালে শুভ্রার মৃত্যুর পর শ্রদ্ধা জানাতে দিল্লি গিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

[৬] রাজনীতি নিয়ে তিনি লিখেছেন ৩টি বই। যেখানে উঠে এসেছে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ, ভারতের অভ্যন্তরীণ রাজনীতি, ইন্দিরা সরকারের জরুরী অবস্থা এবং ভারত-বাংলাদেশ সম্পর্ক। আত্মজীবনীমূলক সিরিজের প্রথমটি দ্য ড্রামাটিক ডিকেড: দ্য ইন্দিরা গান্ধী ইয়ারসয়ে তিনি একটি পুরো অধ্যায়ই লিখেছেন ‘মুক্তিযুদ্ধ: দ্য মেকিং অব বাংলাদেশ’ নামে। সম্পাদনা: ইকবাল খান

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত