প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] কর্মস্থলে সরাসরি যৌন আবেদনের শিকার ৪৭.৪১ শতাংশ নারী

শিমুল মাহমুদ: [২] করোনা মহামারিকালীন প্লান ইন্টারন্যাশনাল ও গার্লস অ্যাডভোকেসি অ্যালায়েন্সের সহায়তায় এই জরিপ পরিচালনা করে জাতীয় কন্যাশিশু অ্যাডভোকেসি ফোরাম। শনিবার সকালে একটি ‘অনলাইন অভিজ্ঞতা বিনিময়’ সভায় এ তথ্য উপস্থাপন করেন ফোরামের সম্পাদক নাছিমা আক্তার জলি।

[৩] তিনি বলেন, শারীরিক স্পর্শের মাধ্যমে ৪৫.১৯, মৌখিকভাবে ৫৯.২৫ এবং সরাসরি যৌন আবেদনের শিকার হয়েছেন ৪৭.৪১ শতাংশ নারী। এছাড়া ৪৪. ৪৪ শতাংশ সুপারভাইজার দ্বারা, ৬৫.১৯ শতাংশ ম্যানেজার/বস দ্বারা, ৫.৯৩ শতাংশ নারী তাদের নিয়োগকর্তার দ্বারা হয়রানির শিকার হয়েছেন।

[৪] গবেষণার জন্য নমুনা হিসেবে ২০টি প্রশ্ন সম্বলিত একটি প্রশ্নপত্র তৈরি করা হয়। অংশগ্রহণকারী ১৩৫ জন নারীর মধ্যে ৪১.৪৮ শতাংশ ২/৩ বার, ২৫.৯৩ শতাংশ নারী ৪ থেকে ৫ বার এবং ২২. ৯৬ শতাংশ নারী একবার করে যৌন হয়রানির শিকার হয়েছেন।

[৫] উত্তরদাতাদের ৮৯ জন জানেনই না কর্মক্ষেত্রে যৌন হয়রানি বিষয়ক হাইকোর্টের একটি গাইডলাইন আছে। গবেষণায় অংশগ্রহণকারী মধ্য ৭৯.৪০ শতাংশ মনে করেন, যৌন হয়রানি প্রতিরোধে একটি সমন্বিত আইন প্রয়োজন। শতকরা ৮৫.১৯ নারী বলছেন, আইন হলেই হবে না, এটি যথাযথ প্রয়োগের মাধ্যমে শাস্তির বিষয়টিও নিশ্চিত করতে হবে। সম্পাদনা : রায়হান রাজীব

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত