প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মেসি-নেইমার ফোনালাপ!

ডেস্ক রিপোর্ট : লিওনেল মেসির বার্সেলোনার ছাড়ার বিষয়টি আদৌ চ‚ড়ান্ত হবে কিনা তা নিয়েই রয়েছে দোলাচল। তবে তাকে দলে পেতে ইতোমধ্যে বেশ কিছু ক্লাব আগ্রহী বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম। সেই তালিকায় এগিয়ে রাখা হচ্ছে পেপ গার্দিওলার ম্যানচেস্টার সিটিকে। তবে প্যারিস সেইন্ট জার্মেইও (পিএসজি) হতে পারে মেসির পরবর্তী ঠিকানা। তাকে ফরাসি ক্লাবটিতে ভেড়ানোর জন্য মাঠে নেমেছেন স্বয়ং ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড নেইমার!

গতকাল আমেরিকান গণমাধ্যম ইএসপিএন তাদের এক প্রতিবেদনে বলেছে, আগের দিন সময়ের অন্যতম সেরা দুই ফুটবলারের মধ্যে হয়েছে ফোনালাপ। আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড মেসির পিএসজিতে নাম লেখানোর সম্ভাবনা নিয়ে তার সঙ্গে কথা বলেছেন নেইমার। শুধু তা-ই নয়। পিএসজি মিডফিল্ডার ও জাতীয় দলের সতীর্থ অ্যাঙ্গেল দি মারিয়ার সঙ্গেও কথা হয়েছে মেসির।

তারা আরও জানিয়েছে, মেসির বার্সা ছাড়তে চাওয়ার পর থেকে কাতারের মালিকানাধীন ক্লাবটি গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছে গোটা পরিস্থিতি। তবে স্প্যানিশ দলটিকে এখন পর্যন্ত কোনো প্রস্তাব দেয়নি তারা। পিএসজি যোগাযোগ করেনি মেসির বাবা ও এজেন্ট হোর্হে মেসির সঙ্গেও। তবে সাবেক সতীর্থ মেসির সঙ্গে পুনরায় জুটি বাঁধার জন্য ক্লাবের কাছে তদবির শুরু করেছেন নেইমার।

২০১৭ সালে রেকর্ড ২২২ মিলিয়ন ইউরো ট্রান্সফার ফিতে বার্সেলোনা ছেড়ে পিএসজিতে যোগ দেন নেইমার। তবে মেসির সঙ্গে তার সম্পর্ক বরাবরই ঘনিষ্ঠ। দুজনে ন্যু ক্যাম্পে একসঙ্গে খেলেছিলেন চার মৌসুম। তাই মেসি বেশ কয়েকবার নেইমারকে ফিরিয়ে আনার কথা বলেছেন বার্সা বোর্ডকে। গেল মৌসুমের গ্রীষ্মকালীন দলবদলের সময়ও একই অনুরোধ করেছিলেন তিনি। কিন্তু বার্সা নেইমারকে ফেরাতে ব্যর্থ হয়। পরবর্তীতে মেসি কাতালান দলটির চেষ্টা নিয়েই প্রকাশ করেছিলেন সন্দেহ।

তবে মেসিকে দলে টানা বেশ কঠিনই হবে পিএসজির পক্ষে। কারণ, মেসি থাকতে না চাইলেও তাকে ছাড়তে রাজি নয় বার্সেলোনা। ফলে ৩৩ বছর বয়সী ফরোয়ার্ডের রিলিজ ক্লজ ৭০০ মিলিয়ন ইউরোর পুরোটা পরিশোধ করতে হতে পারে পিএসজিকে। সেক্ষেত্রে বাধা হয়ে দাঁড়াবে উয়েফার ‘ফিন্যান্সিয়াল ফেয়ার প্লে’ নীতি। তবে বার্সার সঙ্গে চুক্তির বিশেষ ধারা সক্রিয় করে যদি মেসি বিনা ফিতে ক্লাব ছাড়তে পারেন, তাহলে ফের মেসি-নেইমারকে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে খেলতে দেখার সম্ভাবনা উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না!ইনকিলাব

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত