প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আনিস আলমগীর: কোভিডের প্রধান টার্গেট ভালোমানুষ, শয়তানরা মরছে না!

আনিস আলমগীর: জনসংখ্যার তুলনায় করোনায় বাংলাদেশে মৃত্যুহার বেশি না। সরকারি হিসেবে ৪ হাজারও না। ধরে নিন আরও ৪ হাজার হিসেবে নেই। সরকারের অল্প-বিস্তর পদক্ষেপ, মানুষের সচেতনতা আর আল্লাহর রহমতে আমরা এখনও ভালো আছি বলতে পারি। তারপরও এমন সব মানুষদের মৃত্যু সংবাদ পাই, আমার পুরো দিনটাই খারাপ হয়ে যায়। পরশু দিনে আমার চাচার বন্ধু সেলিম সাহেবের একমাত্র ছেলে মারা গেলেন করোনায়। ৪২ বছর বয়স, আইটি ব্যবসা করতেন। ধানমণ্ডিতেই বাসা। সেলিম সাহেব আমাকে স্নেহ করেন। আমার কলাম পছন্দ করেন। এক সময় নিজের একটা পত্রিকায় অনলাইন থেকে আমার কলাম নিয়ে ছাপতেন।

খবর শুনে মনটাই খারাপ হয়ে গেছে আমার। সেই শুক্রবার রাতেই খবর আসল। আমার আপন বড় ভায়রা বাদল ভাই মারা গেছেন হার্ট অ্যাটাকে। চট্টগ্রামে বাসায় আক্রান্ত হয়েছেন, হাসপাতালে নিতে নিতে শেষ। এতো নিরীহ, ভালো একটা মানুষ ছিলেন যে, কারো সাতে পাঁচে জড়াতেন না। অন্যের জীবনে তাকে আমি কখনো হস্তক্ষেপ করতে দেখিনি। তখন থেকে কাল সারাটা দিন আমার বিষণ্ন গিয়েছে- তার কথা ভেবে ভেবে। আজ ঘুম থেকে উঠে জানলাম এনটিভির সাংবাদিক আব্দুস শহীদ ভাই নেই। করোনায় মারা গেছেন। কোনও অহংকার দেখিনি আমি লোকটির মধ্যে। যখনই দেখা হয়েছে নিজেই এগিয়ে এসে কথা বলেছেন। অনেকদিন আগে দুপুর বেলা ধানমণ্ডিতে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে দেখা, আমরা দুজন দুপক্ষের হয়ে গিয়েছিলাম। আমার বাসার পাশেই ভেন্যু। বললাম চলেন কফি খাই। সে গল্প উনি কতোবার যে করেছেন। আমার ছেলে-মেয়ে তখন অনেক ছোট ছিলো। দেখা হলেই ওরা এখন কতো বড় হয়েছে জানতে চাইতেন।

আমি নিশ্চিত করোনা সব ভালো মানুষগুলোকে ধরে ধরে নিয়ে যাচ্ছে। আমার দেখা অনেক ভালো মানুষ, প্রিয়জন আল্লাহর রহমতে বেঁচেও উঠেছেন। তবে আক্রান্ত একটা শয়তানকেও মরতে শুনলাম না এখনও। আশ্চার্য চট্টগ্রামের একটা সাম্প্রদায়িক কুকুর সস্ত্রীক আক্রান্ত হয়েছিল। ৭০ উর্ধ ওই জানোয়ারটার যেমন চেহারা, তেমন তার প্রতিটা কথায় মুসলমানদের বিরুদ্ধে ছড়ায় সাম্প্রদায়িক বিষ। ভাবলাম অন্তত আল্লাহ একটা শয়তানকে নিয়ে নজীর রাখবেন। ওমা কয়দিন পর শুনি সে-ও সুস্থ। আমার প্রিয় মানুষেরা, আপনারা ডাবল সাবধান থাকেন। দরকার না হলে বাড়ির বাইরে যাবেন না। আমিও যাই না। রাস্তাঘাটে মানুষ ‘ডোন্ট কেয়ার’ ভাব নিয়ে চলছে, মৃত্যু কিন্তু থামছে না। আর ভালো মানুষগুলোই করোনার প্রধান টার্গেট হচ্ছেন, শয়তান একটাও করোনায় মরছে না। ফেসবুক থেকে

সর্বাধিক পঠিত