প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] জীবননগরে নাতিকে চিকিৎসা করাতে এসে নানির মৃত্যু, আহত-৭

জামাল হোসেন : [২] চুয়াডাঙ্গা জীবননগর হাসপাতালে নাতিকে চিকিৎসা করাতে এসে বাড়ি ফেরার পথে ইজিবাইক- লাটাহাম্বা মুখোমুখি সংঘর্ষ লাশ হয়ে ফিরলেন নানি। আহত হয়েছেন আরো শিশুসহ ৭ জন।

[৩] বুধবার (২৬ আগস্ট) রাত সাড়ে ৯টার দিকে জীবননগর – দত্তনগর সড়কের বাড় ভাঙ্গা নারিকেল বাগান সংলগ্ন স্থানে এ ঘটনাটি ঘটে।

[৪] নিহত নানির নাম মনোয়ারা (৫৫)। তিনি পার্শ্ববর্তী মহেশপুর উপজেলার হুসুরখালী গ্রামের গোলাম হোসেনের স্ত্রী।

[৫] আহতরা হচ্ছেন- ইভা (৪), ইলমা (৮), নিরব (১৮), বৃষ্টি (১৪), লামিয়া (৫), নাজমুল (২২) ও তালাশ (১৮)। তারা সকলেই পরস্পর নিহতের আত্মীয় এবং একই এলাকায় বাড়ি। সকলেই জীবননগর হাসপাতাল চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

[৬] নিহতের নাতি নাজমুল বলেন, আমি আমাদের স্থানীয় ফুটবল মাঠে খেলাতে গিয়ে সন্ধ্যায় হাতে আঘাত পাই পরে অন্যান্য খেলোয়াড়রা আমাকে উদ্ধার করে জীবননগর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে আসে। খবর বাড়িতে পৌঁছালে আমার নানিসহ অন্যান্য আত্মীয়স্বজন দেখতে হাসপাতালে আসে। চিকিৎসা শেষে আমাকে নিয়ে ইজিবাইক যোগে বাড়ি ফেরার পথে বাড়ভাঙ্গা নারিকেল বাগানের সামনে পৌঁছানো মাত্র বিপরীত দিক থেকে দ্রুতগতিতে ছুটে আসা স্যলোইঞ্জিন চালিত লাটাহাম্বা আমাদের গাড়িতে সজোরে ধাক্কা মারে তাতে আমরা গাড়িসহ রাস্তা থেকে ছিটকে পড়ে যাই। পরবর্তীতে এলাকাবাসী আমাদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য জীবননগর হাসপাতালে নিয়ে আসলে হাসপাতালে কর্তব্যরত চিকিৎসক আমার নানিকে মৃত ঘোষণা করেন।

[৭] এ ঘটনায় কোনো মামলা করবেন না বলে জানান নিহতের ভাই আক্কাস মিয়া।

[৮] জীবননগর থানার ওসি তদন্ত ফেরদৌস ওয়াহিদ বলেন, সড়ক দূর্ঘটনার সংবাদ শোনা মাত্র আমি নিজে সরেজমিনে ঘটনাস্থল ও জীবননগর হাসপাতালে গিয়ে নিহত, আহতদের খোঁজ নিয়ে এসেছি। নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে কোনো মামলা না করায় লাশ তাদের হেফাজতে দিয়ে দেয়া হয়েছে। তবে এঘটনায় থানায় এক‌টি অপমৃত্যুর মামলা রুজু করা হবে। সম্পাদনা : হ্যাপি

সর্বাধিক পঠিত