প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] করোনা কালে একাধিকবার ত্রাতার ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছেন দেব

জেরিন আহমেদ : [২]  ইতোমধ্যে বিদেশ থেকে প্রবাসী ভারতীয়দের ফেরার ব্যবস্থা, কোভিড আক্রান্তকে হাসপাতালে ভর্তি করিয়ে দেয়া, আবার গৃহবন্দি মানুষের আবেদনে সাড়া দিয়ে তাতদের কাছে ওষুধপত্র এবং অন্যান্য সরঞ্জাম পৌঁছে দেয়াসহ বিভিন্ন ব্যবস্থা করেছেন অভিনেতা ও সংসদ সদস্য দেব । এর পাশাপাশি সাধারণ মানুষের কাছে অসুস্থ-পীড়িত মানুষের ছবি কিংবা ভিডিও করার বদলে আগে ফোন রেখে তাকে সাহায্য করার অনুরোধ জানালেন এই অভিনেতা। এক টুইট বার্তায় এই অনুরোধ জানান তিনি।

[৩] টুইট বার্তায় দেব লেখেন, আমি ও আমার টিম এই সমস্যার সমাধান করলেও সকলকে আমি একটি কথা বলতে এবং অনুরোধ করতে চাই, সকলেই যেন এগিয়ে আসেন এবং নিজেদের সাধ্য অনুযায়ী মানুষের সাহায্য করেন। অনেক সময় আমরা সামনের মানুষটার ভিডিও করতে এত ব্যস্ত হয়ে পড়ি যে তাদের সাহায্য করার কথাটাই ভুলে যাই। কাউকে সাহায্য করতে খুব পরিশ্রম করতে হয় না। এর জন্য আপনার অভিনেতা, চিকিৎসক কিংবা সাংসদ হওয়ার প্রয়োজন নেই। শুধু মানুষ হলেই যথেষ্ট। তাই ফোনটাকে নামিয়ে রেখে আগে সামনের মানুষটাকে সাহায্য করতে শিখুন, যদি সেই ইচ্ছে থাকে।

[৪] এরই মধ্যে আবার সংগীতা মজুমদার নামের এক অনুরাগী দেবকে ট্যাগ করে একটি ভিডিও আপলোড করেন। ভিডিওতে বরানগরের এক নারী জানান, কাজ না থাকায় তিনি ও তার স্বামী অর্থাভাবে রয়েছেন। দাম দিয়ে ওষুধ কেনার ক্ষমতা নেই। এদিকে স্বামীর নার্ভের অসুখে ওষুধ খাওয়া খুবই প্রয়োজন। পরে সংগীতা জানান দেব ও তার টিমের ব্যবস্থাপনায় ওষুধ পৌঁছে দেওয়া হয়েছে।

[৫] এদিকে মঙ্গলবার অঙ্কিতা নামে এক তরুণী টুইট করেন, ২৭ ও ৩১ আগস্ট পশ্চিমবঙ্গে সম্পূর্ণ লকডাউন থাকায় বিএইচইউ বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা দিতে যাওয়া নিয়ে চিন্তায় রয়েছেন তারা। বিষয়টি দেখার আশ্বাস দেন দেব। পরে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলে শিক্ষার্থীদের গাড়ির জন্য বিশেষ অনুমতির ব্যবস্থা করে দেন দেব।

[৬] সংগীতা সিম্মি নামে আবার একজন জানান, রাজারহাটের হজ হাউসে বেড খালি না থাকায় করোনা আক্রান্ত বাবাকে ভর্তি করতে পারছেন না। তার বাবার জন্য মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে বেডের ব্যবস্থা করে দেন অভিনেতা-সাংসদ।জি নিউজ, সংবাদ প্রতিদিন

 

সর্বাধিক পঠিত