প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] প্রয়াত নৌসদস্য আব্দুল খালেক বীরবিক্রম’র পরিবারকে আর্থিক সহায়তা দিলো নৌবাহিনী

ইসমাঈল ইমু: [২] বুধবার আর্থিক সহায়তা হিসেবে তার স্ত্রীর হাতে ৫ লাখ টাকার চেক তুলে দেওয়া হয়। তিনি দীর্ঘ দিন বার্ধক্যজনিত অসুস্থতায় ভুগছিলেন। গত ৩০ জুলাই চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

[৩] মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, দুই ছেলে ও দুই মেয়ে রেখে গেছেন। তার এই মৃত্যুতে নৌবাহিনী গভীর শ্রদ্ধা ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছে। আব্দুল খালেক বীর বিক্রম রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার দেওপাড়া ইউনিয়নের চাপাল গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ১৯৬৩ সালের ১ জুন পাকিস্তান নৌবাহিনীতে যোগদান এবং ১৯৬৯ সালে স্বেচ্ছায় অবসরে যান। তিনি স্বাধীনতা যুদ্ধে ৭ ন¤¦র সেক্টরের অধীনে সাব সেক্টর-৪ এ হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে অত্যন্ত সাহসিকতার সাথে অংশগ্রহণ করেন।

[৪] মুক্তিযুদ্ধে এ বীর মুক্তিযোদ্ধা রাজশাহী জেলার গোদাগাড়ী থানার প্রেমতলী ইউনিয়নের খেতুর গ্রামে হানাদার বাহিনীর ক্যাম্প ধ্বংস করার সময় শত্রু পক্ষের বুলেটের গুলিতে বুকে আঘাত প্রাপ্ত হন। মহান মুক্তিযুদ্ধে অসামান্য অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ বাংলাদেশ সরকার অবসরপ্রাপ্ত নৌসদস্য মরহুম আব্দুল খালেককে ‘বীর বিক্রম’ উপাধিতে ভূষিত করে। সম্পাদনা: বাশার নূরু

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত