প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১]৬ রোহিঙ্গা নেতাকে নির্বাচনের অযোগ্য ঘোষণা করলো মিয়ানমার

ইমরুল শাহেদ: [২] মিয়ানমারের আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে আগ্রহী রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর ছয় রাজনীতিবিদকে অযোগ্য ঘোষণা করেছে দেশটির সরকার। জন্মসূত্রে তারা মিয়ানমারের নাগরিক হলেও তাদের পিতামাতা মিয়ানমারের নাগরিক প্রমাণ করতে ব্যর্থ হয়েছেন বলে অভিযোগ করেছে নির্বাচন কমিশন। ফিন্যান্সিয়াল এক্সপ্রেস

[৩] ২২ আগস্ট রয়টার্সকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে আবদুর রশীদ নামের একজন রোহিঙ্গা প্রার্থী সিটওয়ে সংসদীয় আসন থেকে নির্বাচন করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু নির্বাচন কমিশন তার মনোনয়নপত্র বাতিল করে দিয়ে বলেছে, জন্মের সময় তার পিতা-মাতা মিয়ানমারে ছিল না।

[৪] কিন্তু আবদুর রশীদের জন্ম মিয়ানমারে এবং অঙ্গুলিমেয় যে কয়জন রোহিঙ্গার মিয়ানমারের নাগরিকত্ব রয়েছে, তিনি তাদের একজন। তার পিতা ছিলেন একজন সরকারি চাকুরিজীবি।

[৫] ৮ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হবে মিয়ানমারের সাধারণ নির্বাচন। অযোগ্য প্রার্থীদের সম্পর্কে বলা হয়েছে, নির্বাচনবিধি অনুসারে তারা প্রমাণ করতে ব্যর্থ হয়েছেন যে, তাদের পিতামাতা মিয়ানমারের নাগরিক।

[৬] সামরিক শাসন থেকে সরে এসে গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় রূপান্তরের ক্ষেত্রে নির্বাচন মিয়ানমারের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ পরীক্ষা। মানবাধিকার গোষ্ঠীগুলো বলছে, রোহিঙ্গাদের নির্বচানে প্রার্থী হতে বাধা দেওয়া দেশটির গণতান্ত্রিক সংস্কারের সীমাবদ্ধতার কথাই বলে।

[৭] যুক্তরাজ্যভিত্তিক প্রতিষ্ঠান বার্মা রোহিঙ্গা অর্গানাইজেশন ইউকে’র প্রধান তুন খিন বলেন, ‘জাতি বা ধর্ম নির্বিশেষে মিয়ানমারের সবার নির্বাচনে প্রতিদ্ব›দ্বীতা করার সমান সুযোগ অবশ্যই থাকা উচিত।’ মিয়ানমারের নির্বাচন সংস্থাকে অনুদান দেওয়া বন্ধ করার আহŸান জানিয়েছেন তিনি।

 

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত