প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] প্রাথমিকের পাঠ্যপুস্তকে কাগজের মান নিয়ে শঙ্কা, কার্যাদেশ পেতে চলছে অসম প্রতিযোগিতা

শরীফ শাওন: [৩] তৃতীয়, চতুর্থ ও পঞ্চম শ্রেণির জন্য প্রায় সোয়া ৭ কোটি বই ছাপাতে প্রাক্কলিত দর ২১১ কোটি ২৪ লাখ টাকা ধরা হয়। সর্বনিম্ন ১৩২ কোটি ৪১ লাখ টাকা দর দিয়ে কাজ পেয়েছেন ২৩টি প্রতিষ্ঠান। কিছু প্রতিষ্ঠানের আওতায় রয়েছে অধিকাংশ কার্যাদেশ।

[৪] বাংলাদেশ মুদ্রণ শিল্প সমিতির সভাপতি শহীদ সেরনিয়াবাত বলেন, পুস্তক ছাপাতে প্রক্কলিত দরের চেয়ে ২৭ থেকে ৩৪ শতাংশ কম দর দেয়া হয়েছে, যা অস্বাভাবিক। অধিক পরিমান কাজ পাবার আশায় প্রিন্টার্স মালিকরা এ অসম প্রতিযোগিতায় নেমেছেন। কম দর দেয়ায় বোর্ড থেকে তাদের কাজ দিতে হচ্ছে।

[৫] তিনি বলেন, মানসম্মত বই বুঝে নিতে শিক্ষা মন্ত্রী ও সচিব বরাবর একটি চিঠি দিয়েছি। চিঠিতে বলা হয়, কাগজের মান সম্পর্কে যারা জানেন, তাদের সমন্বয়ে একটি উচ্চক্ষমতাসম্পন্ন মনিটরিং টিম গঠন করতে হবে। যেন প্রিন্টার্স মালিকরা কোনভাবে ফাঁকি দিতে না পারেন।

[৬] পাঠ্যপুস্তকের চাহিদা অনুযায়ী প্রাইমারি পুস্তক ৮০ গ্রামের অফসেট পেপারে, যার ব্রাইটটেস ৮৫ শতাংশ, সেকেন্ডারি পুস্তক সাদা রাইটিং পেপারে এবং ওজন ৬০ গ্রাম এবং প্রি প্রাইরি আর্ট পেপারে দিতে হবে।

[৭] শহীদ সেরনিয়াবাত বলেন, প্রাইমারির তৃতীয়, চতুর্থ ও পঞ্চম শ্রেণির পাঠ্যপুস্তক ছাড়ানোর সিদ্ধান্ত একনেকে পাস হয়েছে। বাকিগুলো প্রসেসিংয়ে রয়েছে। সম্পাদনা: রায়হান রাজীব, বাশার নূরু

 

সর্বাধিক পঠিত