প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ক্যালিফোর্নিয়ার নতুন বাড়িটি মেগানের নামেই রাখলেন প্রিন্স হ্যারি

রাশিদ রিয়াজ : ১১ মিলিয়ন পাউন্ডে কেনা বিলাসবহুল বাড়িটি প্রিন্স হ্যারি তার স্ত্রী মেগানের নামেই তালিকাভুক্ত করেছেন। আবাসন খাতের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট বিশ্লেষকরা দাবি করেছেন সান্তা বারবারায় এ বাড়িটির করের কাগজপত্রে দেখা গেছে মাল্টিমিলিয়ন পাউন্ডের এ সম্পদ মেগানের নামেই করে দেয়া হয়েছে।

ক্যালিফোর্নিয়ার এ বাড়িটিতে ৯টি শয়ন কক্ষ রয়েছে। ব্রিটিশ রাজ দম্পতিকে বাড়িটি কিনতে মরগেজ রাখতে হয়েছে ৭ মিলিয়ন পাউন্ড। মার্কিন সাংবাদিক নিয়াল জে. লেইটারেজ এবং জ্যাক ফ্লেমেনি দাবি করেছেন ৭ একর জমিতে এ বাড়িটির মূল্য এর আগে ২৬ মিলিয়ন পাউন্ড দর হাঁকা হয়েছিল। বাড়িটির তখনকার মালিক ছিলেন রুশ বিনিয়োগকারী সের্গেই গ্রিশিন। তার কিছু দেনা থাকায় বাড়িটি বিক্রি করে দেন। কানাডার সাময়িকী দি কিট বলছে এই বাড়িটির হস্তান্তর কোনো বেসরকারি কোম্পানির সাধারণ বাড়ি বিক্রির মত বিষয় নয়। বাড়িটি ক্রয়ের ক্ষেত্রে ক্রেতা ও বিক্রেতার অনেক তথ্যই এক্ষেত্রে গোপন রাখা হয়েছে। আর্থিক উপদেষ্টারা কর হ্রাসের জন্যে বিবিধ পরামর্শ দিয়ে থাকেন।

প্রিন্স হ্যারি এখনো ব্রিটিশ নাগরিক এবং যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকত্বের জন্যে বা গ্রিন কার্ডের জন্যে আবেদন করার র কোনো ইচ্ছে এখন পর্যন্ত নেই। তবে এখনো এই রাজ দম্পতি ব্রিটেনের ফ্রগমোর কটেজের উইন্ডশোর হোম সংস্কারের জন্যে এখনো ২.৪ মিলিয়ন পাউন্ড ঋণ নেয়ার পর তা পরিশোধ করেননি। তাদের মোট সম্পদের পরিমান ৩৩ মিলিয়ন পাউন্ড। তারপরও এখনো হ্যারি তার বাবা প্রিন্স চার্লসের কাছ থেকে যুক্তরাষ্ট্রের বাড়িটি কেনার জন্যে টাকা ধার করেছেন। প্রিন্স চার্লস তার দুই পুত্রের জন্যে প্রয়োজনের সময় অবলীলায় টাকা খরচ করতে রাজি এবং তা করেও থাকেন।

 

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত