প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ‘স্ন্যাপব্যাক,’ আরবদেশগুলোকে নিয়ে ইরানের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের কূটনৈতিক যুদ্ধ

রাশিদুল ইসলাম : [২] মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের মুখপাত্র মর্গান অর্টাগাস বলেছেন উপসাগরীয় সহযোগিতা পরিষদ জানে মধ্যপ্রাচ্যের নিরাপত্তার জন্যে কি করতে হবে এবং ইরানের বিরুদ্ধে অবরোধ ফের আরোপ হবেই। মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর সঙ্গে ইরানের বিরুদ্ধে ‘স্ন্যাপব্যাক’ ফের আরোপে জোর কূটনৈতিক প্রচেষ্টা শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্র। যুক্তরাষ্ট্রের তরফ থেকে বলা হচ্ছে আগামী অক্টোবরে ইরান অস্ত্র কিনতে সমর্থ হবে যদি দেশটির ওপর নতুন করে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা না হয়। আল-আরাবিয়া/প্রেসটিভি

[৩] জাতিসংঘের কাছে যুক্তরাষ্ট্র আনুষ্ঠানিকভাবে চিঠি দিয়েছে ইরানের বিরুদ্ধে অবরোধ আরোপের। মর্গান অর্টাগাস বলছে মধ্যপ্রাচ্যের মিত্রদেশ ও ইসরায়েলের পক্ষে যুক্তরাষ্ট ইরানের বিরুদ্ধে ঠিক কাজটিই করছে। নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী ও অস্থায়ী ১৩টি দেশ পাল্টা চিঠি দিয়ে জাতিসংঘের কাছে ইরানের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা পুনর্বহালের ঘোর বিরোধিতা করেছে। এসব দেশ বলছে পরমানু চুক্তি থেকে বের হয়ে যাওয়ার পর যুক্তরাষ্ট্রের ইরানের বিরুদ্ধে স্নাপব্যাক আরোপের আর কোনো অধিকার নেই।

[৪] ফ্রান্স, ব্রিটেন ও জার্মানি আলাদা চিঠি দিয়ে এধরনের বিরোধিতা করেছে। চীন এবং রাশিয়াও বলেছে, ইরানের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা পুনর্বহালের আবেদন জানানোর কোনো সুযোগ যুক্তরাষ্ট্রের নেই। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও স্ন্যাপব্যাক চালুর জন্য জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের বর্তমান সভাপতি ইন্দোনেশিয়ার স্থায়ী প্রতিনিধির কাছে আবেদন জমা দেন।

[৫] ইরান বলেছে, যুক্তরাষ্ট্র এ আবেদন জানিয়ে আরেকবার অপমানিত হবে। গত সপ্তাহে ইরানের বিরুদ্ধে অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা পুনর্বহালের জন্য জাতিসংঘে যুক্তরাষ্ট্র যে প্রস্তাব উত্থাপন করেছিল তা কণ্ঠভোটে নাকচ হয়ে যায়।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত