প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

প্রথম কেনা শখের মারুতি গাড়ি খুঁজছেন শচীন

ডেস্ক রিপোর্ট : গাড়ির প্রতি টান কার না থাকে? বিশেষ করে সেলিব্রেটিদের বিশেষ দুর্বলতা থাকে গাড়ির প্রতি। হাল ফ্যাশনের সঙ্গে তাল মিলিয়ে শখের গাড়ি সংগ্রহ করতে দেখা যায় অনেক ক্রিকেটারকেও।

ভারতীয় কিংবদন্তী শচীন টেন্ডুলকারের খুব শখের জিনিস গাড়ি। নব্বইয়ের দশকে নিজের টাকায় প্রথম মারুতি ৮০০ মডেলের গাড়ি কিনেছিলেন তিনি। সে সময়ে ভারতীয়দের মাঝে বেশ জনপ্রিয় ছিল মারুতি ব্রান্ডের এই গাড়ি। ক্যারিয়ার যতো এগিয়েছে টেন্ডুলকারের গাড়ির বহরও সমৃদ্ধ হয়েছে। ফর্মুলা ওয়ান রেসার মাইকেল শুমাখারের কাছ থেকে একটি ফেরারি গাড়ি উপহার পেয়েছিলেন তিনি। আর নিজেও নিশান জিটি-আর সহ বিএমডব্লিউর বেশ কয়েকটি মডেলের গাড়ি যুক্ত করেছেন বহরে। গাড়ির ব্রান্ড হালনাগাদ হওয়ায় নিজের প্রথম মারুতি গাড়িটি বিক্রি করে দেন তিনি।

এবার সেই গাড়ি ফেরত পেতে মরিয়া শচীন। তাইতো ভক্তদের অদ্ভুত এক দায়িত্ব দিলেন লিটলমাস্টার শচীন টেন্ডুলকার। নব্বইয়ের দশকে তার ব্যবহৃত মারুতি ৮০০ মডেলের গাড়িটির কেউ কোনো সন্ধান পেলে তার সঙ্গে যোগাযোগ করতে অনুরোধ করেছেন তিনি।

সম্প্রতি এক চ্যাট শো’তে গাড়ির প্রতি তার ভালোবাসার কথা জানান টেন্ডুলকার। তিনি বলেন, ‘আমাদের বাসার সামনে বিশাল এক ড্রাইভ-ইন সিনেমা হল ছিল। সেখানে লোকজন নিজেদের গাড়ি পার্ক করে সিনেমা দেখত। আমি আর আমার ভাই ঘণ্টার পর ঘণ্টা বারান্দায় দাঁড়িয়ে সেসব গাড়ি দেখতাম।’

পেশাদার ক্রিকেটার হওয়ার পরপরই গাড়িটি কিনেছিলেন বলে সেই চ্যাট শো’তে জানান শচীন। ২০১৪ সালে মারুতি সেই ৮০০ মডেলের গাড়িটি তৈরি বন্ধের ঘোষণা দেয়। এরপর থেকেই অনেক ভারতীয় আবেগ তাড়িত হয়ে সেই গাড়িটি আবারও নিজেদের সংগ্রহে আনতে ব্যস্ত হয়ে পড়েন। তাই শচীনও এবার ব্যতিব্যস্ত হয়ে পড়েছেন গাড়িটি ফিরে পেতে।

১৯৮৯ সালের নভেম্বরে মাত্র ১৬ বছর বয়সে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে টেন্ডুলকারের অভিষেক হয়েছিল। টেস্ট এবং ওয়ানডে দুই ফরম্যাটেই সবচেয়ে বেশি রানের মালিক শচীন। দীর্ঘ ক্যারিয়ারে ২০০ টেস্টে ১৫,৯২১ এবং ৪৬৩ ওয়ানডেতে ১৮,৪২৬ রান করেছিলেন তিনি। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে একমাত্র ক্রিকেটার হিসেবে সব ফরমেট মিলিয়ে ১০০ সেঞ্চুরির মালিকও তিনি। ২০১৩ সালের নভেম্বরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ দিয়ে ক্যারিয়ারের ইতি টানেন শচীন।সময় নিউজ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত