প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] হরিণাকুন্ডুতে সিজারের পর প্রসুতির মৃত্যু, সেই ক্লিনিক বন্ধের নির্দেশ

এম. মাহফুজুর রহমান : [২] ঝিনাইদহের হরিণাকুন্ডুতে রোজিনা খাতুন (২০) নামে এক প্রসুতি সিজারের পর মৃত্যুর ঘটনায় হাসপাতাল মোড়ের ভাই ভাই ক্লিনিককে লিখিতভাবে বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন ঝিনাইদহের সিভিল সার্জন ডাঃ সেলিনা বেগম। বুধবার বিষয়টি নিশ্চিত করেন সিভিল সার্জন । পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত ভাই ভাই ক্লিনিকের সকল কার্যক্রম বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া নতুন রোগী ভর্তি না করার নির্দেশনাও দেন।

[৩] এদিকে প্রসুতি মৃত্যুর ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন করেছে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। ঝিনাইদহ সিভিল সার্জন ডাঃ সেলিনা বেগম তদন্ত কমিটি গঠনের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

[৪] তিনি জানান, ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালের গাইনী বিশেষজ্ঞ ডা. আলাউদ্দিনকে প্রধান করে ৩ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তাদেরকে ৭ কার্যদিবসের মধ্যে রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে।

[৫] এদিকে মানহীন ক্লিনিকে অহরহ প্রসুতি ও শিশু মৃত্যুর ঘটনায় প্রথম দিকে স্বাস্থ্যবিভাগে তোড়জোড় শুরু হলেও এখন তা থেমে গেছে। প্রসুতির মৃত্যুর ৫দিন অতিবাহিত হলেও এখন তদন্ত কমিটি কাজ শুরু করতে পারেনি। ইতিমধ্যে তদন্ত নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। প্রসুতি মৃত্যুর ঘটনা ধামাচাপা দিতে করোনা উপসর্গ বলে অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছে ডাক্তার জামিনুর রশিদ। কিন্তু প্রসুতি রোজিনার করোনা রিপোর্ট এসেছে নেগেটিভ। মৃত গৃহবধু হরিণাকুন্ডু উপজেলার জোড়াপুকুরিয়া গ্রামের শিলনের স্ত্রী।

[৬] পারিবারিক সুত্রে জানা গেছে, রোজিনা খাতুন জ্বর নিয়ে ঝিনাইদহ শহরের শামিমা ক্লিনিকে চিকিৎসাধীন ছিলেন। জটিলতা থাকায় ডাঃ শামিমা অপারেশনের ঝুকি না নিয়ে রোগী ফিরিয়ে দেন। এরপর রোজিনা ভর্তি হয় ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে। স্বজনরা বৃহস্পতিবার রাতে হরিণাকুন্ডু হাসপাতাল মোড়ের ভাই ভাই ক্লিনিকে ভর্তি করেন। শুক্রবার সকালে ওই ক্লিনিকে ভর্তির পর ডাঃ জামিনুুর রশিদ ও ডাঃ আহসান হাবিব রোজিনাকে সিজার করেন। সিজারের পর অতিরিক্ত রক্তক্ষরনে পেট ফুলে গিয়ে শনিবার ভোরে রোজিনার মৃত্যু হয় বলে অভিযোগ করেন তার স্বামী শিলন মিয়া।
তবে ডাঃ জামিনুুর রশিদ রোজিনার করোনা উপসর্গ ছিল বলে প্রচার চালিয়ে যাচ্ছেন। এই অবস্থায় তাকে সিজার করে দুর্ঘটনা ঘটে বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

[৭] এলাকাবাসি অভিযোগ করে বলেন, হরিণাকুন্ডু স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সকল যন্ত্রপাতি থাকলেও সেখানে অপারেশন করা হয়না। সরকারী হাসপাতালের ডাঃ জামিনুর রশিদ দেড় বছরেরও বেশি সময় ধরে একই কর্মস্থলে থেকে ক্লিনিকগুলোতে দেদারছে অপারেশন চালিয়ে যাচ্ছেন। তার বিরুদ্ধে অভিযোগের অন্ত নেই। একনাগাড়ে একই কর্মস্থলে থাকায় অনেকে তার খুঁটির জোর নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে তার বদলীর দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসি।

[৮] তথ্য নিয়ে জানা গেছে, ঝিনাইদহ জেলার হরিণাকুন্ডুসহ বিভিন্ন উপজেলা ও হাটে বাজারে গজিয়ে ওঠা ক্লিনিকগুলোতে সেবার কোন মান নেই। অহরহ সেখানে অপচিকিৎসায় মানুষ মারা গেলেও সিভিল সার্জন অফিস কোন পদক্ষেপ গ্রহন করে না। তারা লোক দেখানো তদন্ত করেই দায়িত্ব শেষ করেন।

[৯] এলাকাবাসি জানায়, হরিণাকুন্ডুর ভাই ভাইসহ ৬টি ক্লিনিকের লাইসেন্স নবায়ন নেই। নেই সাইনবোর্ড। নেই প্রয়োজনীয় কাগজপত্র, ডাক্তার, ডিপ্লোমা নার্স, প্যাথলজি টেকনিশিয়ান। নেই চিকিৎসার নুন্যতম কোন পরিবেশ। ক্লিনিকগুলোতে সর্বক্ষন কোন চিকিৎসক বা প্রশিক্ষিত নার্স নেই। তারপরও ঝিনাইদহ সিভিল সার্জন দপ্তর ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় অর্থের বিনিময়ে এদের নতুন লাইসেন্স ও পুরানো লাইসেন্স নবায়ন করে থাকে।
অভিযোগ উঠেছে সিভিল সার্জন অফিসের নওশের আলী, নজরুল ইসলাম, ইসরাইল হোসেন ও নজরুল ইসলাম (২) ক্লিনিকের এই ফাইলগুলো দেখভাল করেন। তারাই মিথ্যা তথ্য দিয়ে বছরের পর বছর মানহীন এ সব ক্লিনিক বহাল রাখার চেষ্টা করেন।

[১০] এ বিষয়ে ঝিনাইদহের সিভিল সার্জন ডাঃ সেলিনা বেগম জানান, আমরা মাতৃমৃত্যু কোন ভাবেই সহ্য করবো না। হরিণাকুন্ডুর ভাই ভাই ক্লিনিকে প্রসুতি মৃত্যুর ঘটনায় ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালের গাইনী বিশেষজ্ঞ ডা. আলাউদ্দিনকে প্রধান ও ঝিনাইদহ সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোঃ সাজ্জাৎ হাসানকে সদস্য সচিব করে ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটির প্রধান ডা. আলাউদ্দিন বলেন ব্যস্ততার মধ্যে আছি। তবে দু-একদিনের মধ্যেই তদন্ত কাজ শুরু করব। কমিটিকে ৭ কার্যদিবসের মধ্যে রিপোর্ট দিতে বলা হলেও কমিটি এখন কাজ শুরু করেনি। প্রসুতি মৃত্যুর ঘটনায় দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহনের কথা বলা হলেও কাজের কাজ কিছুই হচ্ছেনা।

[১১] সিভিল সার্জন বলেন, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বেঁধে দেওয়া সময় অনুযায়ী আগামী ২৩ আগষ্টের মধ্যে বেসরকারি ক্লিনিকের লাইসেন্স নবায়নের নির্দেশনা রয়েছে। এ সময়ের মধ্যে নির্দেশনা অমান্যকারীদের ক্লিনিক বন্ধসহ সকল কার্যক্রম বন্ধ করে দেওয়া হবে।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত