প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] বিমানের সিডিউল টিকিট বিক্রি শেষ, চাকরি নিয়ে দুশ্চিন্তায় প্রবাসীরা

লাইজুল ইসলাম : [২] কোভিড-১৯ অতিমারির কারণে দেশে ফিরে আসেন অনেক প্রবাসী। আবার অনেকে ছুটি থাকায়ও দেশে চলে আসেন। তবে এই বিদেশ ফেরতরা এসে বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই মানেননি স্বাস্থ্যবিধি। থাকতে চাননি কোয়ারেন্টাইনে। এ নিয়ে হজক্যাম্পে আন্দোলনও করেছেন তারা। এরপর দেখা গেছে এই প্রবাসীদের মাধ্যমেই অনেকে কোভিড সংক্রমিত হয়েছেন। সংক্রমিতদের কয়েকজন মারাও গেছেন এমন সংবাদও প্রচার হয়েছে গণমাধ্যমে।

[৩] এখন এই প্রবাসীরাই আবার ফিরতে চাইছেন নিজ কর্মস্থলে। তবে সমস্যা এবারও তাদের সামনে এসে বাঁধ সেধেছে। ইতালী সরকার আপাতত বন্ধ রেখেছে বাংলাদেশের সঙ্গে বিমান যোগাযোগ। সেখানে যাওয়া কয়েকজন বাংলাদেশীর শরীরে কোভিড শনাক্ত হওয়ার পর তাদের দেশে ফিরিয়ে দেয়া হয়। এরপর থেকেই বন্ধ। এদিকে, মধ্যপ্রাচ্যগামী প্রবাসীদেরও ঢুকতে দিচ্ছে না বিভিন্ন দেশ। সংযুক্ত আরব আমীরাত অনেককে তাদের দেশে ঢুকতে দিলেও কিছু  বাংলাদেশীকে ফিরিয়ে দিচ্ছে।

[৪] এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে নতুন সমস্যা। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স, ফ্লাই দুবাই ও এমিরেটস এয়ারলাইন্সের টিকিট স্বল্পতা।  এই তিনটি বিমানই দুবাই ও আবুধাবি ফ্লাইট পরিচালনা করে। তাদের নির্ধারিত সিডিউলের ফ্লাইটের টিকিট বিক্রি হয়ে গেছে। কিন্তু সে দেশে যেতে ইচ্ছুক অনেক যাত্রী রয়ে গেছে।

[৫] এই অবস্থায় বিবিধ অভিযোগ করছেন যাত্রীরা। সবচেয়ে বেশি অভিযোগ বিমানের বিরুদ্ধে। অভিযোগ করছেন, হয়রানির। এমন পরিস্থিতিতে গোদের ওপর বিষ ফোঁড়া হয়ে উঠেছে সংযুক্ত আরব আমিরাত সরকারের নতুন নীতিমালা। যাতে দেশে ফেরত পাঠানো হয়েছে ৬৮ জনকে। সবমিলিয়ে এক অস্থিতিশীল পরিস্থীতির সৃষ্টি হয়েছে।

[৬] টিকিট তুলনায় যাত্রী কয়েকগুন বেশি থাকায় ভীড় সামলাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে। শুধু ঢাকাই নয়, চট্টগ্রাম, সিলেটসহ বিভিন্ন স্থানে বিমান অফিসের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন প্রবাসী শ্রমিকরা। কিছু মিললেও দিতে হচ্ছে দ্বিগুণ-তিনগুণ দাম।

[৭] মধ্যপ্রাচ্যের এক-তৃতীয়াংশ যাত্রী বহন করে বিমান। প্রতিষ্ঠানটির এমডি বলছেন, ক্যাপাসিটি যা ছিলো তাই দিয়ে যাত্রী বহন করছে বিমান। প্রতি সপ্তাহে দুবাইতে ৬ আর আবুধাবিতে ৭টি ফ্লাইট চলাচল করছে। এই সিডিউলের সব টিকিট বিক্রি শেষ। বিমানে ৪১৯ যাত্রী বিপরীতে বহন করা যাচ্ছে দুই শো প্লাস। এই অবস্থায় আরব আমীরাতের শর্তের বেড়াজালে বন্দি বিমান।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত