প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] টাঙ্গুয়ার হাওরের মধ্য দিয়ে ১৩ কিলোমিটার উড়াল সড়ক নির্মাণ হবে

সাইদ রিপন : [২] প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সুনামগঞ্জ জেলার ধর্মশালা, তাহিরপুর, জামালগঞ্জ ও দিরাই উপজেলার সার্বিক যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। এ প্রেক্ষিতেই হাওর এলাকায় গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পটি হাতে নিয়েছে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়। প্রকল্পটি পরিকল্পনা কমিশনে অনুমোদনের জন্য উপস্থাপন করা হয়েছে। জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় অনুমোদনের পর চলতি বছরের জুলাই থেকে জুন ২০২৫ সালে এটি বাস্তবায়ন করবে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি)। পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান এ তথ্য জানিয়েছেন।

[৩] প্রকল্পটির সমীক্ষা কার্যক্রমে দেখা গেছে, হাওর অঞ্চলের জনসাধারনের ব্যবহার উপযোগী অবকাঠামো উন্নয়নের জন্য এ প্রকল্পের মাধ্যমে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন করা হবে। প্রকল্পের মাধ্যমে অবকাঠামোসহ ১০৬.৫৬ কি:মি: উপজেলা জল সিজন সড়ক ২৮.২১ কি:মি: উপজেলা সাবমারজিবল সড়ক ১৯.২০ কি:মি: অল সিজন ইউনিয়ন সড়ক, ১৪.৬৯ কি:মি: সাবমারজিবল ইউনিয়ন সড়ক এবং ৮.১৭ কি:মি: সাবমারজিবল গ্রাম সড়ক, হাওড়ের মধ্যে দিয়ে ১৩.৪১ কি:মি: এলিভেটেড সড়ক উন্নয়ন, উপজেলা সড়কে ২ হাজার ৯৮৭ মিটার ও ইউনিয়ন সড়কে ৬৮৫ মি: ব্রিজ
নির্মাণ এবং বিভিন্ন সড়কে ৭৭৫ মি: কালভার্ট নির্মাণ করা হবে।

[৪] এ বিষয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেন, সুনামগঞ্জ ও নেত্রকোনা পাশাপাশি জেলা হওয়া সত্ত্বেও সরাসরি কোন যোগাযোগ নেই। দেশের অন্য কোন জেলায় এরকম কোন ঘটনা নেই। এই প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হলে সরাসরি এ দুই জেলা যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন হবে। প্রকল্পটি বাস্তবায়নে সাড়ে ৩ হাজার কোটি টাকার প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে পরিকল্পনা কমিশনে। তবে পিইসি সভায় কাঁটছাট হয়ে একনেক সভায় উঠানো হবে।

[৫] তিনি বলেন, উড়াল সড়কটি নির্মাণ হলে চমৎকার টাঙ্গুয়ার হাওরের রূপ আরও বৃদ্ধি পাবে। এর ফলে এখানকার মিঠা পানির মাছ, সবজি, পাথর ও বালি সহজে পরিবহন করা যাবে। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে এ অঞ্চলের পর্যটনের সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধি করা হবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত