প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] যুক্তরাষ্ট্রে ভোক্তা ব্যয় বৃদ্ধি পেয়েছে শূণ্য দশমিক ৬ শতাংশ

রাশিদ রিয়াজ : [৩] কোভিড ভ্যাকসিনের সম্ভাবনা, সরকারি উদ্দীপনা ও নিখোঁজ হওয়ার আশঙ্কা হ্রাস পাওয়ার জন্যে মার্কিন বাজার গতি পাওয়ার চেষ্টা করতে শুরু করেছে বলে ধারণা করছে নুভিন চিফ ইক্যুটি পর্যবেক্ষক। এছাড়া জুলাইতে গ্যাসোলিনের দর বৃদ্ধি অব্যাহত ছিল। তার মানে মানুষ ঘর থেকে বের হয়ে কেনাকাটা করতে শুরু করেছে। ফক্স নিউজ

[৪] অর্থনীতিবিদরা বলছেন মুদ্রাস্ফীতি নিয়ন্ত্রণের মধ্যে রয়েছে। গত ১২ মাসে গ্যাসোলিনের দর যখন ২০.৩ শতাংশ হ্রাস পায় সেখানে জুন থেকে জুলাই পর্যন্ত এ জালানির দর বৃদ্ধি পেয়েছে ৫.৩ শতাংশ। খাদ্য মূল্য গত এপ্রিল থেকে কমেছে শূণ্য দশমিক ৪ শতাংশ। মুদি পণ্য মূল্য কমেছে ১.১ শতাংশ। তবে বাইরে খাবার খাওয়ার ব্যয় বেড়েছে শূন্য দশমিক ৫ শতাংশ।

[৫] অস্থিতিশীল খাদ্য ও জালানির দাম ছাড়া জুন থেকে অন্যান্য পণ্যের মূল্য গত জুন থেকে গতমাস পর্যন্ত শূণ্য দশমিক ৬ শতাংশ বেড়েছে। গত বছরের তুলনায় মুদ্রাস্ফীতি বেড়েছে ১.৬ শতাংশ।

[৬] লকডাউন প্রত্যাহার শুরু প্রচেষ্টার পাশাপাশি ভোক্তা ব্যয় বৃদ্ধি ব্যবসাকে পুনরায় চালু করার বিষয়টি ব্যবসায়ীদেরকে নিরুৎসাহিত করছে। এরফলে ভোক্তারা মনে করতে পারে ভবিষ্যতে পণ্যের দাম কমতে পারে এবং তখনি সে খরচ করবে। যেটি অর্থনীতির জন্যে শুভ লক্ষণ নয়।

সর্বাধিক পঠিত