প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] পাঁচ মোরগ মুক্তি দিয়ে হাঁফ ছেড়ে বাঁচল পাকিস্তান পুলিশ

রাশিদ রিয়াজ : [২] পাকিস্তানের সিন্ধ প্রদেশের ঘোটকি থেকে ৮ মাস আগে নিষিদ্ধ মোরগ লড়াইয়ের আসর থেকে ২৪ জন ব্যক্তিকে গ্রেফতারের সঙ্গে পাঁচটি মোরগ বাজেয়াপ্ত করে পুলিশ। এর পরে আদালতে মামলা চললে ধৃতরা একে একে জামিন পেয়ে গেলেও কেউই ওই মোরগের একটিরও মালিকানা দাবি করেনি। ফলে প্রায় আট মাস ধরে পাঁচটি মোরগ পুষে যেতে হয়েতে পুলিশকে। অবশেষে মিলেছে মালিকের খোঁজ। তাঁর হাত মোরগগুলি সঁপে দিয়ে মুক্তি পেয়েছে পুলিশ। দি ওয়াল

[৩] পাকিস্তানের গ্রামঞ্চলে মোরগ লড়াই খুবই জনপ্রিয়। কিন্তু তা অবৈধ কারণ, এই লড়াইয়ের উপরে বাজিও ধরা হয়। আইন অনুসারে, প্রকাশ্যে বাজি ধরা বা জুয়া খেলা হলে অভিযুক্তদের এক বছরের কারাবাস ও ৫০০ টাকা জরিমানার সংস্থান রয়েছে।

[৪] মোরগগুলির দেখাশোনার জন্য পাকিস্তান পুলিশ কর্তৃপক্ষের কোনও আলাদা ফান্ড না থাকায় কর্মীদের নিজেদের পকেট থেকেই পয়সা খরচ করতে হয়। রোজ শ’খানেক টাকার খাবারই লাগত পাঁচ মোরগের। তাদের উপরে নজর ও দেখভালের জন্য দায়িত্ব ছিল এক কর্মকর্তার ওপর। কোনও মোরগ অসুস্থ হলে তার চিকিৎসা থেকে অন্য পশুর আক্রমণ সব থেকেই বাঁচিয়ে রাখতে নজরদারি রাখতে হত। কুকুর-বিড়াল খেয়ে না নেয় তার জন্যও রীতিমতো তটস্থ থাকতে হত। লকআপ বা মালখানায় নয়, খোলা জায়গায় দড়ি দিয়ে বেঁধে রাখতে হত মোরগগুলিকে। পাছে তাদের কোনও কষ্ট হয় তাই।

[৫] সিন্ধ প্রদেশের ঘোটকির বাসিন্দা জাফর মীরানি আদালতে দাবি জানায় ওই পাঁচ মোরগ তাঁর। মোরগগুলি ফিরে পাওয়ার আর্জি জানান তিনি। আদালতকে তিনি বলেন, করাচিতে কাজে আটকে পড়েছিলেন বলে এতদিন আসতে পারেননি। অবশেষে আদালতের নির্দেশে পুলিশ দাবিদারের হাতে মোরগগুলি তুলে দিয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত